সরকারি অনুদানপ্রাপ্ত মুক্তিযুদ্ধভিত্তিক স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘ময়না’র প্রিমিয়ার শো-র অনুষ্ঠিত

30

১৪ই জানুয়ারী মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরে বরেণ্য কথাসাহিত্যিক আবু ইসহাকের ‘ময়না কেন কয় না কথা’ অবলম্বনে নির্মিত স্বল্পদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্র ‘ময়না’র (৪০ মিনিট) প্রিমিয়ার অনুষ্ঠিত হয়েছে । চলচ্চিত্রটি পরিচালনা করেছেন উজ্জ্বল কুমার। ২০১৮-১৯ অর্থ বছরে সরকারি অনুদান লাভ করে নির্মাণ সম্পন্নপূর্বক ২০২১ সাথে চলচ্চিত্রটি সেন্সর সনদপত্র লাভ করে।

যুদ্ধকালীন সময়ে একটি পোষা ময়না পাখিকে কেন্দ্র করে গল্পটি আবর্তিত হয়েছে। বাঙালির গৌরবগাঁথা মুক্তিযুদ্ধের প্রতীকী উপস্থাপন ‘ময়না’। বাঙালি যখন ‘জয়বাংলা’ স্লোগানে উদ্বেলিত ঠিক তখনই কিশোর রনি তাঁর পোষা ময়না পাখিটিকে ‘জয় বাংলা’ বলতে শেখায়। পাকিস্তানি সেনা বাহিনীর হত্যা, নির্যাতন ও আতংকে সারা দেশ যখন নিস্তব্ধ প্রায়, ময়না পাখিটির ‘জয় বাংলা’ ডাক তাদেরকেও ভীতগ্রস্থ করে তোলে। রনির বাড়ি থেকে ময়না পাখিটিকে নিয়ে ‘পাকিস্তান জিন্দাবাদ’ শেখানোর অক্লান্ত চেষ্টা চালায় তারা। এমনই ঘটনাক্রমের মধ্য দিয়ে ‘ময়না’র কাহিনী এগিয়ে যায়।

চলচ্চিত্রটির প্রিমিয়ার শো-তে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ’ময়না’র জন্য শুভ কামনা জানিয়ে এক ভিডিও বার্তায় মোরশেদুল ইসলাম পরিচালক সর্ম্পকে বলেন ’উজ্জ্বলের নির্মাণে সব সময় একটা সততা থাকে। সে তার নির্মাণের মধ্যে দিয়ে চলচ্চিত্রে এক নতুন মাত্রা যোগ করবে বলে আমার বিশ্বাস।’

চলচ্চিত্রটিতে অভিনয় করেছেন রহমত আলী, আহসান স্বরণ, ফারুখ আহমেদ, শিরিন রহমান মনি, মানস বন্দোপাধ্যায়, আলিফ চৌধুরী কাজী সুফিয়া আক্তার প্রমুখ। চিত্রগ্রহনে ছিলেন কাসেফ সাহাবাজি, শিল্পনির্দেশনায় উত্তম গুহ, নির্বাহী প্রযোজক আদনান কবির, লাইন প্রডিউসার সোহেল আহমেদ সিদ্দিকী ও পোশাক পরিচ্ছেদ প্রীতি রোজারিও।

চলচ্চিত্রটি সারা দেশের স্কুল কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রদর্শনের জন্য পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।