দেশে গণতন্ত্র নেই-এরশাদ

128

NK_Nov_15_048ড়াইল কণ্ঠ : আমরা কোন দেশে বাস করছি। দেশে এখন কোনো গণতন্ত্র নেই। আপনারা গণতন্ত্রের রূপতো দেখছেন। টেলিভিশনে কথা বলতে গেলে টেলিভিশন বন্ধ করে দেওয়া হয়। মানুষ এখন বাইরে বের হতে পারে না। চলাচল করা যায় না। সকালে বের হলে বিকেলে বাসায় ফিরতে পারবে কিনা তার কোনো নিশ্চয়তা নেই। কথা বলার সুযোগ নেই। লেখার সুযোগ নেই। এখন আমরা অবরুদ্ধ।  রবিবার (২২ নভেম্বর) সকাল ১১টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমি’র “দানবীর ফাজেল মোল্যা চত্ত্বরে জেলা জাতীয় পার্টির আহবায়ক শরীফ মুনির হোসেনের সভাপতিত্বে জেলা জাতীয় পার্টির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলনে প্রধান অতিথি পার্টির প্রতিষ্ঠাতা ও জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান সাবেক রাষ্টপতি আলহাজ হুসাইন মোহম্মদ এরশাদ এমপি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, আদালত যুদ্ধাপরাধের সঠিক রায় দিয়েছেন। আদালতের বাইরে যাওয়ার কারও সুযোগ নেই। রায়কে আমি সম্মান করি। রায় সবাইকে মানতে হবে।

তিনি বিএনপির সমালেচনা করে বলেন, বিএনপি প্রতিহিংসার রাজনীতি শুরু করেছে। বিএনপি আমাকে নির্জন কারাবাসে পাঠিয়েছিল। তারা চেয়েছিল আমি আতœহত্যা করি। আমি বোঁচে আছি। তাদের চেয়ে ভালো আছি। আমার ওপর অনেক অনেক অত্যাচার হয়েছে। আল্লাহ এর বিচার করবেন।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জাপা’র কেন্দ্রীয কমিটির প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সমন্বয়কারী সুনীল শুভ রায়, সাহিদুর রহমান টেপা, মীর আব্দুস সবুর, নির্বাহী কমিটির সদস্য অ্যাডভোকেট অশোক ঘোষ, অ্যাডভোকেট খোন্দকার ফায়েকুজ্জামান ফিরোজ, জেলা সাংগাঠনিক সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম প্রিন্স, কালিয়া জাপা’র আহবায়ক গাজী খালেদ আশরাফ, বদরুল ইসলাম শেখ প্রমুখ।
বক্তরা সরকারকে অনতিবিলম্বে জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসাইন মোহম্মদ এরশাদের বিরুদ্ধে সকল রাজনৈতিক হয়রানীমূলক মিথ্যা মামলা তুলে নেয়ার আহবান জানান।

২৭ বছর পর সাবেক রাষ্টপতি ও জাতিয় পার্টির চেয়ারম্যান আলহাজ হুসাইন মোহম্মদ এরশাদ-এমপি নড়াইলে আসলেন।