ধর্ষণ মামলা থেকে অব্যাহতি পেলেন পাকিস্তান টেস্ট দলের স্পিনার

11

১৪ বছরের কিশোরীকে ধর্ষণ ও ভিডিও ধারনের যে অভিযোগ আনা হয়েছিল পাকিস্তান টেস্ট দলের স্পিনার ইয়াসির শাহের বিপক্ষে, সে অভিযোগ থেকে অব্যাহতি পেয়েছেন তিনি। তদন্তের পর পুলিশ’ই ইয়াসির শাহের নাম বাতিল করে দেন চার্জশিট থেকে। পাকিস্তান অবজারভার জানিয়েছে এ খবর।

পুলিশের পক্ষ থেকে ইয়াসির শাহকে নির্দোষই দাবি করা হয়েছে। ইসলামাবাদ শালিমার পুলিশের কাছে করা ১৪ বছরের কিশোরির এফআইআরে নাম ছিল ইয়াসির শাহের।

ডিসেম্বরের ১৯ তারিখ ইয়াসির এবং তার বন্ধু ফারহানকে অভিযুক্ত করে এফআইআর দায়ের করেন সেই কিশোরী। যেভানে ফারহানের বিপক্ষে সরাসরি ধর্ষণ ও ভিডিও ধারনের অভিযোগ আনা হয়। যেখানে ইয়াসির শাহকে অভিযুক্ত করা হয় মূলতঃ সহায়তাকারী হিসেবে।

ইসলামাবাদের শালিমার থানার পুলিশ জানিয়েছে, তদন্তের সময় সেই কিশোরীর বক্তব্যেই স্পষ্ট হয়েছে যে, এফআইআরে ভুলবশতঃ ইয়াসির শাহের নাম অন্তর্ভূক্ত করা হয়েছিল। গত মাসে অভিযোগ দায়েরের সময় যেভাবে বলা হয়েছিল, মূলতঃ ইয়াসির শাহ তেমন কোনো কর্মকাণ্ডের সঙ্গেই জড়িত ছিলেন না। এমনকি তিনি এসব বিষয়ে কিছু জানতেনও না।’

১৪ বছরের সেই কিশোরীর চাচি বা খালা হয় এমন কেউ শালিমার পুলিশ স্টেশনে ওই এফআইআরটি দায়ের করেন। পাকিস্তানি দণ্ডবিধির ২৯২-বি ও ২৯২-সি (শিশু পর্নগ্রাফি) ও ৩৭৬ ধারায় ধর্ষণের অভিযোগে মামলাটি করা হয়। ইয়াসিরের বিরুদ্ধে এই অভিযোগ ওঠার পর পিসিবি চেয়ারম্যান রমিজ রাজা মন্তব্য করেছিলেন, ‘এটা পাকিস্তান ক্রিকেটের জন্য খুবই লজ্জাজনক একটি বিষয়।’