সুনামগঞ্জে কলেজছাত্র হত্যার দায়ে ৩ জনের যাবজ্জীবন

14

সুনামগঞ্জ: সুনামগঞ্জের ছাতক উপজেলার জাউয়াবাজার ডিগ্রি কলেজের ছাত্র আল-আমিন হত্যা মামলায় তিন আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। পাশাপাশি তাদের ২০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে তিন মাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

সোমবার (১০ জানুয়ারি) দুপুরে সুনামগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ ওয়াহিদুজ্জামান শিকদার এ রায় দেন।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন- ছাতক উপজেলার চরমহল্লা ইউনিয়নের ছনুয়া গ্রামের রফিক আলীর ছেলে আক্কাস মিয়া, মৌজরাই গ্রামের আরজক আলীর ছেলে আজিজুল ইসলাম ও লক্ষণসোম গ্রামের আব্দুল হাসিমের ছেলে সাইদুল হক। তাদের মধ্যে আক্কাছ মিয়া ও আজিজুল ইসলাম পলাতক।

এ মামলার এজাহারে জানা যায়, ২০১৬ সালের ১৬ অক্টোবর জাউয়াবাজার ডিগ্রি কলেজের দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র আল-আমিনের সঙ্গে ওই তিনজনের কথা কাটাকাটি হয়। পরদিন স্থানীয় এক ব্যক্তি বিষয়টি মীমাংসা করে দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিলেও ছাতক উপজেলার বড়কাপন এলাকায় টেম্পু স্ট্যন্ডের সামনে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আল-আমিনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেন তারা। এসময় ঠেকাতে গেলে মারধরের শিকার হন আল-আমিনের সহপাঠীরা। ঘটনার পর থেকেই পলাতক রয়েছেন আক্কাস মিয়া ও আজিজুল ইসলাম। এ ঘটনায় করা হত্যা মামলায় ওই তিনজনকে আসামি করা হয়। মামলার শুনানি শেষে অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় সোমবার এ রায় দিলেন বিচারক।

সুনামগঞ্জ জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট খায়রুল কবির রুমেন বাংলানিউজকে বলেন, তিন আসামির মধ্যে দু’জন পলাতক। আদালত তাদের দ্রুত গ্রেফতার করে সাজা নিশ্চিত করার নির্দেশনা দিয়েছেন।