সেনাপ্রধানের পৈত্রিক এলাকায় বিনামূল্যে মেডিকেল ক্যাম্প

20

স্টাফ রিপোর্টার ॥ বাংলাদেশ সেনাবাহিনী কর্তৃক ৫৫ পদাতিক ডিভিশন যশোরের ব্যবস্থাপনায় সেনাপ্রধানের পৈত্রিক এলাকায় প্রায় ১১’শ মানুষকে বিনামূল্যে চিকিৎসা প্রদান করা হয়েছে। সোমবার (১০ জানরয়ারি) সকাল ৯টা হতে নড়াইলের লোহাগাড়া উপজেলার করফা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে আর্থিকভাবে অস্বচ্ছল ও দু:স্থ মানুষের স্বাস্থ্যসেবায় এ চিকিৎসা ক্যাম্প পরিচালনা করা হয়।

সেনাবাহিনীর বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক দল এ মেডিকেল ক্যাম্পের মাধ্যমে বিভিন্ন বয়সের (নারী, পুরুষ ও শিশু) প্রায় ১ হাজার ১’শ জনকে স্বাস্থ্যসেবা প্রদান করা হয়। মেডিক্যাল ক্যাম্পটি পরিচালিত হয় বিকাল ৪টা পর্যন্ত।

সংবাদ বিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে জানাযায়, বাংলাদেশ বাহিনীর সেনাপ্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ এর নির্দেশক্রমে চলমান শীতকালীন প্রশিক্ষণে অংশগ্রহণরত অবস্থায় ৫৫ পদাতিক ডিভিশনের সদস্যগণ আর্তমানবতার সেবায় নিরলসভাবে বিভিন্ন জনসেবামূলক কর্মকান্ড নিয়িমিতভাবে পরিচলনা করা হচ্ছে।

জানা গেছে, জিওসি, ৫৫ পদাতিক ডিভিশন ও এরিয়া কমান্ডার যশোর এরিয়া মেজর জেনারেল মোঃ নূরুল আনোয়ার (এনডিসি, এইচডিএমসি, এএফডব্লিউসি, পিএসএস, জি) এর সার্বিক তত্ত্বাবধানে যশোর ও খুলনা অঞ্চলের বিভিন্ন জেলায় নিয়মিতভাবে এ ধরনের মেডিক্যাল ক্যাম্প পরিচালিত হয়ে আসছে।

ক্যাম্পে চিকিৎসা নিতে আসা মল্লিকপুর গ্রামের মনছুর শেখ জানান, আমাদের গর্ব বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর সেনাপ্রধান তাঁর পৈত্রিক এলাকার মানুষের কথা ভেবে এ ধরনের চিকিৎসা সেবার ব্যবস্থা করেছেন। আমি নিজে চিকিৎসা পেয়ে এবং আর্মিদের আচারনে ভিষন খুশি।

একই গ্রামের হান্নান মোল্যা, আনোয়ার হোসেন মোল্যা জানান, বাড়ি কাছে চিকিৎসা সেবা পেয়ে আমরা খুবই খুশি।

এ সময় চিকিৎসা নিতে আসা অনেকে নড়াইলকণ্ঠকে জানান, সেনাপ্রধান জেনারেল এস এম শফি উদ্দিন আহমদ এঁর পৈত্রিক ভিটাবাড়ি মল্লিকপুর। সেই পৈত্রিক ভিটাবাড়ির ওপর সেনাপ্রধানের পিতা মরহুম বীরমুক্তিযোদ্ধা শেখ মোহাম্মদ রোকন উদ্দিন আহমেদর নামে ১০ শয্যা বিশিষ্ট একটি মা ও শিশু কল্যান হাসপাতাল নির্মাণ হতে যাচ্ছে শুনে আমরা আনন্দিত।