পাবনায় টাকা ফেরত চাওয়াকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ, নিহত ১

2

বিদেশে লোক পাঠানোর টাকা ফেরত চাওয়াকে কেন্দ্র করে পাবনার বেড়া উপজেলার চরসাফুল্লা গ্রামে দুই পক্ষের সংঘর্ষে তোতা ব্যাপারী (৬০) নামের এক ব্যক্তি নিহত হয়েছেন। এ ঘটনায় উভয় পক্ষের কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়েছেন।

শুক্রবার (৭ জানুয়ারি) সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত দফায় দফায় সংঘর্ষ চলে। এ ঘটনায় এলাকায় উত্তেজনা বিরাজ করছে।

নিহত তোতা ব্যাপারী (৬০) চরসাফুল্লা গ্রামের মৃত আহেজ ব্যাপারীর ছেলে। আহতদের বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্র জানায়, দেড় বছর আগে চরসাফুল্লা গ্রামের শফিকুল ইসলামের মাধ্যমে সৌদি আরব যান তোতা মিয়ার ছেলে আখের আলী। কয়েক মাস থাকার পরে শফিকুল সেখানে থেকে গেলেও আখের আলী দেশে ফেরত আসেন। দেশে এসে আখের আলী শফিকুলের পরিবারের কাছে তাকে বিদেশে পাঠানোর টাকা ফেরত চান। এ নিয়ে দীর্ঘদিন ধরেই উভয় পরিবারের মধ্যে বিরোধ চলছিল। এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার সকাল ১০টার দিকে উভয় পরিবারের মধ্যে কথা-কাটাকাটি হয়। এক পর্যায় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ বেধে যায়।

Pabna-(2).jpg

প্রায় দুই ঘণ্টাব্যাপী চলা সংঘর্ষে তোতা মিয়াসহ উভয় পক্ষের ১১ জন আহত হন। আহতদের উদ্ধার করে বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তোতা মিয়াকে মৃত ঘোষণা করেন।

খবর পেয়ে বেড়া থানা পুলিশ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে এবং নিহতের মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়।

এ বিষয়ে বেড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অরবিন্দ সরকার বলেন, এ ঘটনায় মামলার প্রস্ততি চলছে। হত্যাকাণ্ডে জড়িতদের গ্রেফতারে অভিযানে নেমেছে পুলিশ।