লোহাগড়ার নলদীতে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় ৬জন আহত

29

স্টাফ রির্পোটার ॥ নড়াইলের লোহাগড়ায় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় নলদী ইউনিয়নে আহত হয়েছে ৬জন। আজ সোমবার (২৭ ডেিসম্বর) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে নালিয়া-সুজাপুর এলাকায় এ ঘটনা ঘটেছে।

এলাকার সূত্রে জানাগেছে, এ ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রাথী আবুল কালাম আজাদ পাখির সমর্থিত লোকজনের হাতে আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. জাহাঙ্গীর আলম বিশ্বাসের সমর্থিত লোকজনের ওপর এ সহিংসতার ঘটনা ঘটিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। এ ঘটনায় আহত ৬জনকে সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহতরা হলেন, সুজাপুরের মৃত রাজ্জাক মোল্যার ছেলে অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ মিজানুর রহমান (৫৮), একই এলাকার অন্তর (১৫) মোর্শেদ (৩৮), সোহান (১৮), ব্রক্ষ্মনীনগরের আব্দুল্লাহ (৩০) ও আরিফ(২৬)।

এ সময় আহতদের দেখতে আসেন নলদী ইউনিয়নের আওয়ামীলীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. জাহাঙ্গীর আলম বিশ্বাস। তিনি নড়াইলকণ্ঠকে জানান, নির্বাচনে হারজিত থাকবেই। আমরা নির্বাচনে হেরে যাওয়ায় আমার লোকজনের ওপর পাখি মোল্যার লোকজন এ ধরনের ঘটনা ঘটিয়েছে। আমরা আইনের প্রতি আস্থা ও শ্রদ্ধাশীল রয়েছি।

এঘটনা সম্পর্কে এ ইউনিয়নের স্বতন্ত্র প্রাথী আবুল কালাম আজাদ পাখির নিকট জানতে চাইলে তিনি, এঘটনার সাথে আমার লোকজন জড়িত নয়। আমি এবং আমার লোকজন সব সময় আইনের প্রতি আস্থা ও শ্রদ্ধাশীল রয়েছি। আমি কোন প্রতিহিংসার রাজনীতি করি না। আমি যতদুর জানি এঘটনাটি মুলত: মেম্বর প্রার্থির সাথে অন্য মেম্বর প্রার্থির লোকজনের মধ্যে ঘটতে পারে।

নলদী পুলিশ ফাঁড়ি ইনচার্জ এসআই মো: আবুবকর জানান, আজ সকালে একটি ঘটনা ঘটেছে। সেখানে গিয়ে জানলাম ইট-পাটকেল ছুড়াছুড়ি হয়েছে। মুলত: এ ঘটনাটি ঘটেছে নালিয়া ওয়ার্ডে মেম্বর প্রার্থী জাহাঙ্গাীর আলম খোকন ও বাদশার সমর্থিত লোকজনের মধ্যে, আনারস বা নৌকা প্রার্থীর সমর্থিত কোন লোকজনের মধ্যে নয়।

তিনি আরো জানান, ঘটনার ঘটার পরপরই আমরা সরেজমিনে পরিদর্শন গিয়েছি। এসময় অতিরিক্ত পুলিশ সুপার তানজিলা সিদ্দিকী উপস্থিত ছিলেন। বর্তমান এলাকার পরিবেশ পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে।##