হত্যা মামলায় নড়াইলে একই পরিবারের ০১ জনের ফাঁসি ও ৩ জনের যাবজ্জীবন

20

স্টাফ রিপোর্টার : নড়াইলের নড়াগাতী থানার কালিনগর গ্রামে ফিরোজ ভূঁইয়া হত্যা মামলায় একই পরিবারের একজনের ফাঁসি ও তিনজনের যাবজ্জীবন কারাদন্ড দিয়েছেন আদালত। রোববার (২১ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১০টার দিকে জেলা ও দায়রা জজ মুন্সী মোঃ মশিয়ার রহমান এ দন্ডাদেশ প্রদান করেন।

ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত আসামি হলেন-কালিয়া উপজেলার কালিনগর গ্রামের ছায়েন ভূঁইয়ার ছেলে আলমগীর ভূঁইয়া (৫০)। এছাড়া যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্তরা হলেন বাবা ছায়েন উদ্দিন ভূঁইয়া (৭৮) ও তার অপর দুই ছেলে হাবিবুর রহমান ভূঁইয়া (৪৮) ও জঙ্গু ভূঁইয়া (৫৬)। রায় ঘোষণার সময় চার আসামির মধ্যে জঙ্গু ভূঁইয়া ছাড়া অন্যরা আদালতে উপস্থিত ছিলেন।
এছাড়াও ফাঁসির দন্ডপ্রাপ্ত আসামীকে ৫০ হাজার টাকা জরিমানা এবং যাবজ্জীন সাজাপাপ্ত আসামীদের আরো ২০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরো ৬ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ডাদেশ দেয়া হয়।

মামলার বিবরণে জানা যায়, জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে নড়াইলের নড়াগাতী থানার কালিনগর গ্রামে বাদী রবিউল ইসলাম ভূঁইয়াদের সাথে একই বংশের আসামিপক্ষের মধ্যে বিরোধ চলে আসছিল। এর জের ধরে ২০১৪ সালের ১৮ জানুয়ারি কালিনগর বাজারে উভয়পক্ষের মধ্যে শালিস বৈঠক হয়। শালিসের পর ওইদিন সকাল সাড়ে ৯টার দিকে বাদীর ভাই ফিরোজ ভূঁইয়াকে কালিনগর বাজার এলাকায় দেশি অস্ত্র ধারালো গুপ্তি বুকে ঢুকিয়ে হত্যা করে। ১৬ জনের সাক্ষ্য-প্রমাণ শেষে আসামীদের বিরুদ্ধে সত্যতা প্রমাণিত হওয়ায় বিজ্ঞ বিচারক এ রায় ঘোষণা করেন। পলাতক আসামী জঙ্গু ভূঁইয়াকে গ্রেফতারের সাজা কার্যকর হবে।
মামলাটি সরকারী পক্ষে পরিচালনা করেন নড়াইল জজকোর্টের পিপি অ্যাডভোকেট এমদাদুল ইসলাম এমদাদ ও আসামী পক্ষে অ্যাডভোকেট নেওয়াজ মাহমুদ তুহিন ও অ্যাডভোকেট এসএম ওয়ালিউর রহমান।

রায় ঘোষণার পর আসামীদের স্বজনরা কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন। এদিকে রায়ে সন্তোষ প্রকাশ করেছেন মামলার বাদীপক্ষ।