সোশ্যাল মিডিয়ায় আমরা অসহায়:মোস্তাফা জব্বার

13

ডেস্ক রিপোর্টা : ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেছেন, সোশ্যাল মিডিয়ার কনটেন্ট অপসারণ বা তালা মারার ক্ষমতা বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) নেই। এটা তারা তাদের নিজেদের মতো করে সাজায়, তাদের ওপর আমাদের নির্ভর করতে হয়। এক্ষেত্রে আমরা অসহায়।

বিটিআরসি কার্যালয়ে আজ সোমবার এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন মন্ত্রী। এ সময় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, কনটেন্ট ও আনুষাঙ্গিক বিষয়ে নানা কথা বলেন তিনি। এতে সভাপতিত্ব করেন বিটিআরসির চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর শিকদার। এ ছাড়া বিটিআরসির ভাইস চেয়ারম্যান সুব্রত রায় মৈত্র, সংস্থার মহাপরিচালক (সিস্টেম অ্যান্ড সার্ভিসেস) ব্রিগেডিয়ার জেনারেল নাসিম পারভেজ এতে বক্তব্য দেন।

মোস্তাফা জব্বার বলেন, টেলিফোন বা আইএসপি দিয়ে শুধু অপরাধ হয় না। ডার্ক ওয়েভে অপরাধের প্রবণতা বাড়ছে। এখন সবচেয়ে বেশি অপরাধের সংঘটনের মাধ্যম হলো ইন্টানেট। এক্ষেত্রে অসহায়ত্ব প্রকাশ করা ছাড়া আমাদের কোনো বিকল্প নেই। অপরাধের বড় হাতিয়ার ভিপিএন। অপরাধ করার হাতিয়ার দিন দিন বাড়ছে।

ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী বলেন, বিটিআরসির পক্ষে কেবল টেলকো অপারেটর ও আইএসপিগুলো নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব। এখন বাংলাদেশের সীমানায় আপত্তিকর ওয়েবসাইটগুলো বন্ধ করা যায়। ইতোমধ্যে আমরা ২২ হাজারের বেশি পর্নো ও জুয়ার সাইট বন্ধ করেছি। যখনই লিংক পাই তখনই বন্ধ করার চেষ্টা করি।

মন্ত্রী বলেন, কিন্তু অন্যগুলোর ব্যাপারে আমরা এক প্রকার অসহায়ত্ব বোধ করি। আর সেটা হলো সোশ্যাল মিডিয়া। কারণ সোশ্যাল মিডিয়াগুলো তাদের মতো করে কমিউনিটি স্ট্যান্ডার্ড বানায়, সেক্ষেত্রে তাদের কৃপার ওপর নির্ভরশীল হতে হয় আমাদের। আমাদের এটা মেনে নিতে হবে। তবে আমরা ফেসবুকের সঙ্গে নিয়মিত আলোচনা করছি।