নড়াইলে করোনার প্রাদূর্ভাব সপ্তাহব্যাপি অপরিবর্তিত থাকবে,২৪ঘন্টায় করোনায় আক্রান্ত ৪৬,মৃত্যু ২

46

স্টাফ রিপোর্টার ॥ গত কয়েক দিন বিশ্লেষণ করলে দেখা যায়, নড়াইলে কোভিড-১৯ করোনাভাইরাসের প্রাদূর্ভাব ক্রমন্বয়ে বেড়েই চলেছে। এ প্রাদূর্ভাব লোহাগড়া ও কালিয়া উপজেলার চেয়ে নড়াইল সদরে সবচেয়ে বেশি।

এদিকে গত বৃহস্পতিবার ১৭ জুন আমেরিকা ভিত্তিক ট্রাস্ট চ্যারিটি প্রতিষ্ঠান আমেরিকার্স সংস্থাটির উদ্যোগে নড়াইলে কোভিড-১৯ প্রতিরোধে স্বাস্থ্যকর্মীদের জন্য ব্যক্তিগত সুরক্ষামূলক সরঞ্জাম পিপিই এবং চিকিৎসা সমাগ্রী হস্তান্তরের সময় নড়াইলের সিভিল সার্জন ডা. নাছিমা আকতার তার বক্তব্যে বলেন নড়াইলে আরো এক সপ্তাহ ধরে করোনাভাইরাসের প্রাদূর্ভাবের গতি একইভাবে থাকবে। তিনি আরো বলেন, আগামি এক সপ্তাহ পর নিয়ন্ত্রণে চলে আসবে। এ সময়ে সকলে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলতে হবে।

গত ১৭ জুন সকাল ৮টা থেকে ১৮ জুন সকাল ৮টা পর্যন্ত (২৪ ঘন্টায়) নড়াইলে নতুন করে ৪৬ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। শুক্রবার বার (১৮ জুন) সিভিল সার্জন অফিস থেকে প্রাপ্ত সিভিল সার্জন ডাঃ নাছিমা আক্তার স্বাক্ষরিত এক রির্পোটের সূত্রে জানাগেছে, জেলায় মোট ১২০ টি নমুনা সংগ্রহ করা হয় । যার মধ্যে ৪৬ জন নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন।এর মধ্যে সদরে ২০,লোহাগড়ায় ২০ এবং কালিয়ায় ৬ জন। সদর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে ২০ জন। এ পর্যন্ত জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে ২৯ জনের মৃত্যু হয়েছে।

এদিকে করোনা উপর্সগ নিয়ে বৃহস্পতিবার শহরের ভাদুলীডাঙ্গা এক জনের মৃত্যু হয়েছে। নিহতের নাম শ্বশান বিশ্বাস (৫৫) । জানাগেছে মৃত্যু শ্বশান বিশ্বাস বেশ কিছুদিন ধরে ঠান্ডা, কাশি-জ্বর নিয়ে অসুস্থ্য ছিলেন। করোনা অক্রান্ত হয়ে মিজানুর রহমান (৫০) নামে একজন মারা গেছেন। বৃহস্পতিবার রাত দেড়টার দিকে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে তিনি মারা যান । মিজানুর রহমান নড়াইল সদর উপজেলার মির্জাপুর গ্রামের হারুন অর রশিদের ছেলে। মিজানুর রহমান করোনা অক্রান্ত গত ৭ জুন খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে করোনা ইউনিটে ভর্তি হয়। চিকিৎসাধীন অবস্থায় বৃহস্পতিবার রাতে মারা যান। শুক্রবার নিহতের দাফন সম্পন্ন হয়েছে।

সিভিল সার্জন অফিস সূত্রে জানাগেছে, নড়াইলে চিনের সিনোফার্ম এর ২হাজার ৪ শত ডোজ করোনা ভ্যাকসিন (টিকা) পৌঁছেছে। সিভিল সার্জন কার্যালয়ের ইপিআই ভবনের তাপমাত্রা নিয়ন্ত্রিত ষ্টোর রুমে টিকাগুলো সংরক্ষণ করা হয়েছে।