নড়াইলে ভাষা শহিদের স্বরণে লাখো মোমবাতি প্রজ্জ্বলন

39

স্টাফ রিপোর্টার ॥ ‘অন্ধকার থেকে মুক্ত করুক একুশের আলো’-একুশের আলোয় বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবর্ষ’ এ শ্লোগানকে ধারণ করে ভাষা শহিদদের স্বরণে নড়াইলে লাখো মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়েছে।

রোববার (২১ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় নড়াইল সরকারি ভিক্টোরিয়া কলেজ মাঠ কুরিরডোব মাঠ হিসেবে পরিচিত এ মাঠে একুশের আলো সংগঠনের উদ্যোগে নড়াইলের মানুষ মুক্তিযোদ্ধ ও অসাম্প্রদায়িক চেতনা নিয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও ভাষা শহিদদের স্মরণ করলো। একুশের সন্ধ্যায় এ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন নড়াইলের নবাগত জেলা প্রশাসক মো. হাবিবুর রহমান।

সব অন্ধকারকে পরিহার করে আলোর পথে চলার দৃপ্ত শপথ ঘোষনা করেন অনুষ্ঠানে আগত অতিথিবৃন্দ ও দর্শনার্থীরা। আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ও অমর একুশ উদযাপনে সন্ধ্যা লাগার সাথে সাথে লাখো মোমবাতি প্রজ্জ্বলন করা হয়। একই সাথে ভাষা দিবসের ৭০তম বার্ষিকীতে ৭০টি ফানুষ ওড়ানো হয়। কুড়িরডোব মাঠে লাখো মোমবাতি একসাথে জ্বলে উঠার সাথে সাথেই সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের শিল্পীরা গাইতে থাকেন ‘আমার ভায়ের রক্ত রাঙ্গানো একুশে ফেব্রুয়ারি, আমি কি ভুলিতে পারি’।

লাখো মোমবাতি দিয়ে বিশাল কুরিরডোব মাঠ স্মৃতি সৌধ, শহিদ মিনার, জাতীয় ফুল শাপলা, আল্পনা, বাংলা বর্ণমালা, মমবাতি প্রজ্জ্বলন দিয়ে মাঠ সাজানো হয়।

মুক্তিযোদ্ধ ও অসাম্প্রদায়িক চেতনা নিয়ে দেশে-বিদেশ থেকে আসা দর্শনার্থীরা নড়াইলের মানুষের এ আয়োজন দেখে তার খুশি। এবার এ আয়োজনে মাঠে দর্শনার্থিদের উপস্থিতি ছিলো স্মরণীয় ।

এ সময় এ সময় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার মো: জসিম উদ্দিন, জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নিজাম উদ্দিন খান নিলু, সদর উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট ওমর ফারুক, নড়াইল পৌরসভার নবনির্বাচিত মেয়র আঞ্জুমান আরা, একুশ উদযাপন পর্ষদের আহ্বায়ক প্রফেসর মুন্সি হাফিজুর রহমান, সদস্য সচিব নাট্যব্যক্তিত্ব কচি খন্দকার, কোষাধ্যক্ষ শামীমূল ইসলাম টুলু, পৌর কাউন্সিলর শরফুল আলম লিটুসহ বিভিন্ন শ্রেণিপেশার সব বয়সী মানুষ।

এ দিনটি উদযাপন উপলক্ষে মাঠে আলোচনা সভা, আবৃতি, গণসঙ্গীত ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

উল্লেখ্য, নড়াইলে এ ধরণের ব্যতিক্রমি আয়োজন ১৯৯৭ সালে সুলতান মঞ্চ চত্বরে প্রথম শুরু হয়।