এসপিদের হাতে থানার দায়িত্ব দিতে সুপারিশ করেছে দুদক

38

ডেস্ক রিপোর্ট : বর্তমানে উপজেলা পর্যায়ে অধিকাংশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিসের বিভিন্ন ক্যাডারের কর্মকর্তারা। এবার তাদের সরিয়ে সেখানে সহকারী পুলিশ সুপার বা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পদমর্যাদার কর্মকর্তাদের দায়িত্ব দিতে সুপারিশ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

সাংবিধানিক প্রতিষ্ঠানটি বলছে, পুলিশের পরিদর্শক পদমর্যাদার কর্মকর্তারা থানায় ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার (ওসি) দায়িত্ব পালন করায় সাধারণ মানুষ কাঙ্ক্ষিত সেবা পায় না। এটা পরিবর্তন করা জরুরি।

জানা গেছে, দুদকের ২০১৯ সালের বার্ষিক প্রতিবেদনে এই সুপারিশ করা হয়েছে এবং সেটি রোববার বঙ্গভবনে রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদের হাতে তুলে দেয়া হয়।

সেই উপলক্ষে আজ সোমবার (০৮ ফেব্রুয়ারি) সাংবাদিকদের সঙ্গে এক ভার্চুয়াল মতবিনিময় সভায় দুদক চেয়ারম্যান ইকবাল মাহমুদ বলেন, বিগত পাঁচ বছরে দেশে সাজার হার বেড়েছে। এ সংখ্যাটা বর্তমানে ৭৭ শতাংশ। যা আগে ছিল ৩৭ শতাংশ। তবুও এই হারে দুদক সন্তুষ্ট নয় এবং সাজার হার শতভাগ হবে বলে আমরা প্রত্যাশা করি।

প্রতিবেদনে ২০১৬ সাল থেকে দুর্নীতি প্রতিরোধ ও নিয়ন্ত্রণে দুদক বিভিন্ন সুপারিশ করেছে জানিয়ে তিনি বলেন, কিন্তু এসব বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় বা বিভাগ তেমন কোনো পদক্ষেপ নেয়নি। এগুলো বাস্তবায়ন করা হলে অনিয়ম-দুর্নীতির পথ কিছুটা হলেও কঠিন হয় বলে মনে করে দুদক।

দেশের লিজিং কোম্পানি, নন-ব্যাংকিং আর্থিক প্রতিষ্ঠানগুলোতে বহুমাত্রিক দুর্নীতি ঘটছে উল্লেখ করে প্রতিবেদনে বলা হয়, এসব প্রতিষ্ঠানের আর্থিক লেনদেনের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহির জন্য গ্রাহকদের কাছ থেকে নেয়া অর্থের উৎস বাধ্যতামূলকভাবে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে অবহিত করতে হবে। এক্ষেত্রে বাংলাদেশ ব্যাংক, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় বিভাগ ও বাণিজ্য মন্ত্রণালয় যৌথভাবে একটি নীতিমালা জারি করতে পারে।