নড়াইল আদালতে তারেক রহমানের কারাদন্ড হওয়ায় শহরে আনন্দ মিছিল

93

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নড়াইলের আদালতে তারেক রহমানের দুই বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড, ১০হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ছয় মাসের কারাদন্ডাদেশ হওয়ায় শহরে স্বাস্থ্যবিধি মেনে আনন্দ মিছিল হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (০৪ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় নড়াইল চৌরাস্তায় নড়াইল জেলা আওয়ামী লীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক কাজী জহিরুল হকের উদ্যোগে এ আনন্দ মিছিল অনুষ্ঠিত হয়।

কয়েক শত আওয়ামীলীগ সমর্থক, যুবলীগ, স্বেচ্ছাসেবকলীগ দলীয় নেতাকর্মী এ আনন্দ মিছিলে অংশ নেয়। মিছিলটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে চৌরাস্তায় এক পথসভায় অনুষ্ঠিত হয়।

পথসভায় বক্তৃব্য রাখেন, বাংলাদেশ আওয়ামী স্বেচ্ছাসেবক লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগাঠনিক সম্পাদক শাহ জালাল মুকুল, নড়াইল জেলা আওয়ামীলীগের শ্রম বিষয়ক সম্পাদক ও নবনির্বাচিত কাউন্সিলর কাজী জহিরুল হক, জেলা কৃষক লীগের সভাপতি মো. মাহাবুবুর রহমান, পৌরসভার নবনির্বাচিত কাউন্সিলর মাসুদ রানা বাবলু প্রমুখ।

উল্লেখ্য, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে নিয়ে আপত্তিকর ও কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য দেয়ায় নড়াইলের আদালতে দায়েরকৃত এক হাজার কোটি টাকার মানহানী মামলায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে দুই বছরের বিনাশ্রম কারাদন্ড, ১০হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো ছয় মাসের কারাদন্ডাদেশ দেন বিচারক।

বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে নড়াইলের আমলী আদালতের জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমাতুল মোর্শেদা এ দন্ডাদেশ প্রদান করেন। মামলার বাদী ছিলেন কালিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার ও আওয়ামীলীগের সক্রিয় কর্মী বেন্দারচর গ্রামের শাহজাহান বিশ্বাস।

মামলায় উল্লেখ করা হয়, ২০১৪ সালের ১৬ ডিসেম্বর বিজয় দিবস উপলক্ষে ইংল্যান্ডের ইষ্ট লন্ডনের এন্ট্রিয়াম ব্যাংকওয়েট হলে যুক্তরাজ্য বিএনপির এক সভায় বিএনপির সিনিয়র ভাইস চেয়ারম্যান তারেক রহমান জাতির পিতা মহান মুক্তিযুদ্ধের মহানায়ক বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের প্রতিষ্ঠাতা, বাংলাদেশের স্থপতি ও রূপকার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে ‘রাজাকার ও পাকবন্ধু’ বলেন। তাছাড়া অনেক আপত্তিকর ও কুরুচীপূর্ণ বক্তব্য দেন।