কেমন চলছে নড়াইল পৌরসভা নির্বাচন!

123

স্টাফ রিপোর্টার \ শান্তিপূর্ণ পরিবেশে অনুষ্ঠিত হচ্ছে নড়াইল পৌরসভা নির্বাচন। সারাদেশ ব্যাপী পৌর নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে অনুষ্ঠিত হচ্ছে এ নির্বাচন।

আজ শনিবার (৩০ জানুয়ারি) সকাল ৮টা থেকে শুরু হয়েছে ভোট গ্রহণ। চলবে একটানা বিকাল ৪টা পর্যন্ত। নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন মোট তিনজন প্রার্থী। তারা হলেন আওয়ামী লীগের আঞ্জুমান আরা, বিএনপি’র জুলফিকার আলী ও ইসলামী আন্দোলনের মাওলানা খায়রুজ্জামান। নির্বাচনের পাঁচদিন আগে এক সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে নড়াইল-০২ আসনের এমপি মাশরাফী বিন মুর্ত্তজার প্রতি সম্মান দেখিয়ে নৌকা প্রতীককে সমর্থন জানিয়ে নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থী সরদার আলমগীর হোসেন।

সকাল ৮টা থেকে ১০টা পর্যন্ত বিভিন্ন ভোট কেন্দ্র ঘুরে দেখা যায় নির্বাচনের পরিবেশ ছিল শান্তিপূর্ণ। শীতের সকালে কেন্দ্রের ভিতরে ভোটারদের দীর্ঘ লাইন না থাকলেও উল্লেখযোগ্য সংখ্যক ভোটারের আনাগোনা লক্ষ্য করা যায়। একে একে ভোটাররা আসছেন এবং নির্বিঘ্নে ভোট দিয়ে ফিরে যাচ্ছেন।

এ সময় প্রশাসনের কর্তা ব্যক্তি, র‌্যাব, বিজিবিসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ব্যাপক তৎপরতা লক্ষ্য করা গেছে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত কোথাও কোন সহিংসতা বা বিশৃঙ্খলার খবর পাওয়া যায়নি।

সকাল ৮টার পরপরই শহরের আলাদাতপুর নড়াইল সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল এন্ড কলেজ কেন্দ্রে ভোট প্রদান করেন আওয়ামী লীগ প্রার্থী আঞ্জুমান আরা ও বিএনপি’র প্রার্থী জুলফিকার আলী।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাড. সুবাস চন্দ্র বোস, জাতীয় পরিষদ সদস্য অ্যাড. ফজলুর রহমান জিন্না, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. সৈয়দ মোহাম্মদ আলী, স্বেচ্ছাসেবক লীগ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক ও আ.লীগ প্রার্থীর নির্বাচন পরিচালনা কমিটির প্রধান সমন্বয়ক শাহজালাল মুকুল, নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সমন্বয়ক সৌমেন বসু, সদর উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ইসমাত আরা প্রমুখ নেতৃবৃন্দ।

কেন্দ্রে কেন্দ্রে ঝটিকা পরিদর্শন যান জেলা প্রশাসক মো: হাবিবুর রহমান, পুলিশ সুপার মো: জসিম উদ্দীন পিপিএম, বিপিএম (বার), রিটার্নিং অফিসার ও জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো: ওয়ালিউল্লাহ। এ সময় পুলিশ সুপার মো: জসিম উদ্দীন বলেন, নির্বাচন শান্তিপূর্ণ করার জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সদা তৎপর। বিভিন্ন কেন্দ্রে সুশৃঙ্খল পরিবেশে ভোটগ্রহণ চলছে। ভোটার উপস্থিতিও ভাল। এখনো পর্যন্ত কোথাও কোন সহিংসতার অভিযোগ পাওয়া যায়নি। মানবিক এমপি মাশরাফী বিন মুর্ত্তজাসহ আমরা সবাই চাই নড়াইলে অবাধ ও শান্তিপূর্ণ একটি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। কোন বিশৃঙ্খলা বরদাশত করা হবে না।