রেল কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ‘চাকরিপ্রত্যাশী’ নারীর ধর্ষণ মামলা

9

ডেস্ক রিপোর্ট: রাজশাহীতে রেলওয়ের এক কর্মকর্তার বিরুদ্ধে এক গৃহবধূকে ধর্ষণের অভিযোগে মামলা হয়েছে। ওই গৃহবধূ (২৫) বাদী হয়ে গতকাল সোমবার রাতে রাজশাহী মহানগরের বোয়ালিয়া মডেল থানায় মামলাটি করেছেন।

অভিযুক্ত ব্যক্তির নাম মঈন উদ্দিন আজাদ (৪২)। তিনি রাজশাহী রেলওয়ে স্টেশনের স্টেশনমাস্টার পদে কর্মরত। নগরের শিরোইল এলাকায় তাঁর বাড়ি। মামলা দায়েরের পর থেকে তাঁর ফোন বন্ধ পাওয়া যাচ্ছে।

এ বিষয়ে নগরের বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিবারন চন্দ্র বর্মন বলেন, অভিযোগটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। কারণ, চাকরির প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ নাকি জোর করা হয়েছে, নাকি দুই লাখ টাকা উদ্ধারের জন্য ওই নারী এই মামলা করেছেন, এই বিষয়টি তদন্তের পরে আসামিকে গ্রেপ্তারে অভিযান চালানো হবে।

রাজশাহী মহানগরের বাসিন্দা ভুক্তভোগী ওই নারী মঙ্গলবার রাতে বলেন, ট্রেনে যাতায়াতের পথেই স্টেশনমাস্টার আজাদের সঙ্গে তাঁর পরিচয়। এরপর তাঁদের মধ্যে ফেসবুক মেসেঞ্জারে কথা হতো। তিনি রেলওয়েতে একটি চাকরিও দিতে চেয়েছিলেন। বলেছিলেন, চাকরির জন্য আট লাখ টাকা লাগবে। তিনি আগাম দুই লাখ টাকাও নিয়েছিলেন।

মামলার এজাহারে ওই নারী বলেছেন, রেলওয়েতে একটি চাকরির নিয়োগ পরীক্ষার প্রস্তুতিমূলক বই দেওয়ার নামে গত রোববার বিকেলে (১৭ জানুয়ারি) তাঁর বাসায় ডাকেন। তিনি সরল বিশ্বাসে তাঁর বাসায় যান। গিয়ে দেখেন, বাসায় কেউ নেই। ফাঁকা বাসায় মঈন উদ্দিন আজাদ তাঁকে ধর্ষণ করেন। হাজার চেষ্টা করেও তিনি রক্ষা পাননি। এজাহারে আরও উল্লেখ করা হয়েছে, ধর্ষণের পর ওই নারীকে রেল কর্মকর্তা হুমকি দেন যে ঘটনাটি কাউকে জানালে তাঁর বড় ধরনের ক্ষতি করা হবে। তিনি পরদিনই থানায় মামলা করলেন।

জানতে চাইলে বাংলাদেশ রেলওয়ে পশ্চিমাঞ্চলের মহাব্যবস্থাপক (জিএম) মিহির কান্তি গুহ বলেন, তাঁর অফিস থেকে মৌখিকভাবে এক কর্মকর্তা তাঁকে জানিয়েছেন। ঘটনা সত্য হলে তাঁকে অন্যত্র বদলির জন্য তিনি নির্দেশ দিয়েছেন। তাঁর বিরুদ্ধে বিভাগীয় আর কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে কি না, জানতে চাইলে তিনি বলেন, এর জন্য বিভাগ আছে, আইন আছে। সেই মোতাবেক সবকিছু হবে।