নির্বাচনী সুষ্ঠু পরিবেশের দাবী করলেন নড়াইল পৌর মেয়র প্রার্থী জুলফিকার

526

স্টাফ রিপোর্টার ॥ নড়াইল পৌরসভার নির্বাচনী সুষ্ঠু পরিবেশের দাবী করেছেন বিএনপির মেয়র প্রার্থী জুলফিকার আলী।

আজ শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) বিকালে ‘ধানের শীষের প্রার্থী জেলা বিএনপি’র সিনিয়র সহ-সভাপতি সাবেক নড়াইল পৌর মেয়র জুলফিকার আলী তার আলাদাতপুরস্থ নিজ বাসভবনের সামনে বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিনিধিদের সামনে এ দাবী রেখে বলেছেন, এবার নির্বাচন যদি সুষ্ঠু ও নিরেপক্ষ হয় এবং ভোট প্রদানের পরিবেশ হয় তাহলে আমরা নিশ্চিত জয় লাভ করবো ইনশাল্লাহ্।’

এদিকে মেয়র পদে একই পাড়া থেকে নৌকা ও ধানের শীষ প্রতিক নিয়ে মাঠে লড়াইয়ে করছেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের আঞ্জুমান আরা এবং বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির জুলফিকার আলী। মাঠে কথিত রয়েছে এ লড়াইয়ে মাঠে শক্ত অবস্থানে রয়েছেন ধানের শীষ প্রাথী জুলফিকার আলী।

এ সময় তিনি নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার প্রতি আস্থা ব্যক্ত করে বলেন, এবার পৌর নির্বাচন যাতে সুষ্ঠ ও নিরপক্ষ হয় এবং সাধারণ মানুষ নির্ভয়ে ভোট কেন্দ্রে এসে ভোটাধিকার প্রয়োগের পরিবেশ পায় সে বিষয়টার ওপর বিশেষভাবে খেয়াল রাখবেন আমাদের এমপি মাশরাফী।

তিনি সাংবাদিকদের সামনে অভিযোগ করে বলেন, গত দু’দিন ধরে আমার নির্বাচনী প্রচারনায় বাধা সৃষ্টি করা হয়েছে, এমন কি আমার প্রচারে ইজিবাইকে থাকা এক কর্মীকে হত্যারও হুমকি দেয়া হয়েছে। বিষয়টি এখনও প্রশাসনকে জানায়নি। আমরা স্থানীয়ভাবে সমাধানের চেষ্টা চালাচ্ছি, সমাধান না হলে প্রশাসনকে জানাবো।

এদিকে জেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা গেছে, নড়াইল ও কালিয়ায় মেয়র পদে ৭ জন, সংরক্ষিত নারী কমিশনার পদে ২০ জন ও সাধারণ কমিশনার পদে ৭১ জন প্রার্থী এ নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছে । এরমধ্যে নড়াইল পৌরসভায় মেয়র পদে ৪ জন , সংরক্ষিত নারী কমিশনার পদে ১১ জন ও সাধারণ কমিশনার পদে ৩৯ জন এবং কালিয়া পৌরসভায় মেয়র পদে ৩ জন , সংরক্ষিত নারী কমিশনার পদে ৯ জন ও সাধারণ কমিশনার পদে ৩২ জন প্রার্থীর এ নির্বাচনে প্রতিদ্বদ্ধিতা করবেন।

উল্লেখ্য, নড়াইল পৌরসভায় মেয়র পদে অন্যান্যের মধ্যে রয়েছেন, আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বঞ্চিত বিদ্রোহী প্রার্থী (জগ) প্রতীকে সরদার আলমগীর হোসেন আলম, ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ (পাখা) প্রতীকের প্রার্থী মাওলানা খায়রুজ্জামান।

এবার নড়াইল পৌরসভায় ভোটার রয়েছে ৩৪,৩১৩ জন এবং গত ২০১৫ সালে এ পৌরসভায় ভোট ছিলো ২৯,৪৫০ জন।

এবার দ্বিতীয়বারের মতো পৌরসভায় দলীয় প্রতীকে নির্বাচন হচ্ছে। এবারও তৃণমূলের এ নির্বাচনে মূল লড়াই হবে নৌকা ও ধানের শীষ প্রতীকের মেয়র প্রার্থীদের মধ্যে। ২০১৫ সালের ৩০ ডিসেম্বর দলীয় প্রতীকে একযোগে দেশব্যাপী ২৩৪ পৌরসভায় নির্বাচন হলেও এবার চার ধাপে এ নির্বাচন হচ্ছে। ওই নির্বাচনে ২০ দলের প্রার্থীরা অংশ নিয়েছিলেন। ভোট পড়েছিল ৭৩ দশমিক ৯২ শতাংশ।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে মূলত: চারস্তর বিশিষ্ট স্থানীয় সরকার কাঠামো বিদ্যমান। যেমন জেলা পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, সিটি কর্পোরেশন, পৌরসভা ও ইউনিয়ন পরিষদ এসব গুলোই স্থানীয় সরকার কাঠামোর প্রতিষ্ঠান। প্রায় দেড়-দু’শ বছরের উর্দ্ধের ইতিহাস স্থানীয় সরকার কাঠমোতে নির্বাচন হয়ে আসছে এলাকার সামাজিক ব্যক্তি, গোষ্টি বা দলনিরপক্ষ মানুষ হিসেবে ভোট দিয়ে ঔএলাকার একজন ব্যক্তিকে পৌরসভার চেয়ারম্যান/মেয়র নির্বাচিত করা হতো।

দেশে চলমান পৌর নির্বাচনের নড়াইল জেলায় নড়াইল সদর ও কালিয়া পৌরসভায় নির্বাচন হতে যাচ্ছে আগামি ৩০ জানুয়ারি ২০২১।