ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার পুলিশ কর্মকর্তার বাসা থেকে

7

ডেস্ক রিপোর্ট: কেরানীগঞ্জের কলাতিয়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আশিকুজ্জামানের বাসা থেকে গৃহকর্মীর ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোমবার সন্ধ্যায় লাশ ময়নাতদন্তের জন্য স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজ (মিটফোর্ড) হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

নিহত সোনিয়া আক্তার জান্নাতি (১৬) গোপালগঞ্জের কাশিয়ানী থানার বাঘজাপা গ্রামের সাকিল মিয়ার মেয়ে।

কলাতিয়া পুলিশ ফাঁড়ির এসআই চুন্ন মিয়া জানান, তিন বছর ধরে জান্নাতি ফাঁড়ির ইনচার্জ আশিকুজ্জামানের বাসায় গৃহকর্মীর কাজ করত। এক মাস আগে ওই বাসায় বেড়াতে আসেন জান্নাতির মা জোসনা বেগম। এসে মা দেখতে পান মেয়ে লুকিয়ে মোবাইল ফোনে কার সঙ্গে যেন কথা বলে। মেয়েকে ফোনে কথা না বলার জন্য একাধিকবার বারণ করেন জোসনা বেগম। কিন্তু জান্নাতি মায়ের কথা আমলে নেয়নি। এ কারণে সোমবার দুপুরে মেয়েকে গালমন্দ করেন তিনি। অভিমানে সন্ধ্যায় ঘরের ফ্যানের সঙ্গে ওড়না পেঁচিয়ে ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা করে জান্নাতি।

কেরানীগঞ্জ মডেল থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মুজাম্মেল হোসেন বলেন, খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে ওই কিশোরীর ঝুলন্ত লাশ দেখতে পাই। এরপর নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট কামরুল হাসান সোহেলের উপস্থিতিতে লাশ নামিয়ে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে পাঠাই। এ ঘটনায় জান্নাতির মা জোসনা বেগম কেরানীগঞ্জ মডেল থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা করেছেন।