ফেসবুককে ভেঙে দেয়া উচিৎ, প্রযুক্তি জায়ান্টের বিরুদ্ধে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের মামলা

6

ডেস্ক রিপোর্ট: কয়েক ডজন রাজ্য ও মার্কিন কেন্দ্র সরকার বলছে, ডিজিটাল বাজারে নিজেদের একক প্রভাবের নেতিবাচক ব্যবহার করছে ফেসবুক। তাদের আচরণ কোনওভাবেই প্রতিযোগীতামূলক নয়। ফেডারেল ট্রেড কমিশন বলছে, কেন্দ্রীয় আদালত যেনো একটি স্থগিতাদেশ জারি করে ইনস্টাগ্রাম ও হোয়াটসঅ্যাপসহ সমুদয় সম্পদ ভাগ করে দেয়া হয়।

মামলার এজহারে বলা হয়েছে, ‘লাখো কোটি আমেরিকানের জীবন এখন সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম কেন্দ্রীক। ফেসবুক সব গ্রাহককে কুক্ষিগত করে রেখেছে। এমনকি নিজেদের সিদ্ধান্ত তারা সবার উপর চাপিয়ে দেয়। তারা সরকার নয়, কিন্তু আচরণ সেরকমই। আমরা এই অপ্রতিযোগীতামূলক আচরণ বন্ধ করতে চাই।’

২০১২ সালে ইন্সটাগ্রামকে ১ বিলিয়ন ডলারে আর ২০১৪ সালে ১৯ বিলিয়ন ডলারে হোয়াটসঅ্যাপকে কিনে নেয় ফেসবুক। এরপর থেকে পুরোপুরিভাবে দুটি প্রতিষ্ঠানকে শতভাগ নিয়ন্ত্রণ করছে ফেসবুক। তখন থেকেই তাদের অনলাইন দুনিয়ার একক অধিপতি বলে মনে করা হচ্ছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, মালিক যেই হোক, ৩টি কোম্পানির পরিচালনা পদ্ধতি আলাদা হওয়াই যৌক্তিক।