নাগরিক অধিকার বাস্তবায়নে সংশ্লিষ্টদের প্রতি দৃষ্টি আকর্ষণ

26

স্ট্যাফ রিপোর্টার ॥ দেশের প্রতিটি নাগরিকের অন্যের অধিকার অক্ষুন্ন রেখে স্বাধীনভাবে নিজ নিজ জনপদে চলাচল, বসবাস, শিক্ষা, স্বাস্থ্য , জেন্ডার সমতা তার সাংবিধানিক অধিকার। যারা রক্ষক তাদের মধ্যে বেশিরভাগ মানুষ শ্রেণি বৈষম্য সৃষ্টির মদদদাতা, চোখের সামনে এসবের থুড়াই তোয়াক্কা করে চলেছে দেশের অবকাঠমো উন্নয়ন প্রতিষ্ঠান সমূহ। আমরা জানি নড়াইল বহু যাবতকাল উন্নয়ন বঞ্চিত জেলা। এ জেলায় প্রায় সাতযুগেও তেমন কোন উল্লেখযোগ্য উন্নয়ন হয়নি।
সম্প্রতি নড়াইল-২ আসনের সংসদ সদস্য, জাতীয় ক্রিকেট দলের সাবেক সফল অধিনায়ক মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা নড়াইলের উন্নয়ন ভাবনা নিয়ে দৃঢভাবে প্রতিজ্ঞাবদ্ধ ঠিক সেই সময় কথিপয় দুষ্টচক্র মানবরূপী দানব ও তাদের সাথে যুক্ত কতিপয় অসৎচরিত্র, ভাগবাটোয়ার মানসিকতা উন্নয়ন বাস্তবায়নকারি প্রতিষ্ঠানের কর্মকর্তাবৃন্দ। এ দু’টি মহলকে রুখতে আমজনতা ঐক্যবদ্ধ হওয়া জরুরি। তা না হলে জেলার কোন উন্নয়ন কার্যক্রমের অনুকুলে বরাদ্দের অর্থ যথাযথ বাস্তবায়ন হবে না। তার অন্যতম প্রমাণ নড়াইল-২ আসনের লোহাগড়ার উপজেলার নোয়াগ্রাম ইউনিয়নের বাড়িভাঙ্গা গ্রাম। এলাকায় ৩টি গুরুত্বপূর্ণ সড়ক বিগত তিনবছর আগে বৃহত্তর যশোর প্রজেক্টে ডিপিপি ভুক্ত হওয়া সত্বেও সড়কটি আজও বাস্তবায়ন হয়নি। অদৃশ্য কোন এক কারণে এই জনপদের মানুষের কাঁন্না সঠিক জায়গায় পৌঁছাচ্ছে না। এলাকাবাসি এ সব সড়কের দ্রুত উন্নয়নের দাবি রেখে সোস্যাল মিডিয়ায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি করেছেন। সাধারণ মানুষের ডাকে সাড়া দিলে সংবিধানে দেয়া নাগরিকের অধিকার বাস্তবায়ন হবে নিশ্চিত।