ধামগড়ের সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন

22

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধি ॥ অবশেষে সবাইকে চোখের জলে ভাসিয়ে চির নিদ্রায় শায়িত হলেন নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার প্রবীণ আওয়ামীলীগ নেতা ও ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান মোঃ তাজুল ইসলাম(৭৫)।

রবিবার (০১ নভেম্বর) সকাল ১১টায় তার নিজ গ্রাম আমৈর কড়ইবাড়ি জান্নাতুল বাকী ঈদগাহ কবরস্থানে জানাজা দাফন করা হয়। এর আগে তার দীর্ঘ দিনের ফেলে আসা কর্মস্থল ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদ প্রাঙ্গণে প্রথম নামাজের জানাজা এবং সাড়ে ১০টায় তার গ্রামের বাড়িতে দ্বিতীয় নামাজের জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। মরহুমের সম্মানে ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদে আয়োজিত প্রথম জানাজায় মানুষের ঢল নামে। তাকে শেষ বিদায় জানাতে ছুটে আসেন বিভিন্ন রাজনৈতিক সামাজিক নেতৃবৃন্দসহ সর্বস্তরের জনসাধারণ।

এ সময় অসংখ্য সংগঠন ও ব্যাক্তিবর্গের পক্ষ থেকে মরহুমের মরদেহে ফুলের অভ্যর্থণা জানায়। জানাজায় অংশ নেন নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের ২৭নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর কামরুজ্জামান বাবুল,একই ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর সিরাজুল ইসলাম,ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের বর্তমান চেয়ারম্যান মাসুম আহম্মেদ,মরহুমের মেয়ের জামাতা যুব সংহতি নেতা আলী আহাম্মদ, আওয়ামীলীগ নেতা আব্দুস সোবহান,আজিজুল হক, জাতীয় পার্টির নেতা কামাল হোসেন, আলাউদ্দিন চেয়ারম্যান, হাবিব মেম্বার, হাফেজ আহাম্মদ মেম্বারসহ শত শত মুসল্লী। উল্লেখ্য, তাজুল ইসলাম দীর্ঘ দিন ধরেই লিভার সিরোসিসে আক্রান্ত হয়ে ভুগছিলেন।

গত শনিবার দিবাগত রাত পৌণে ১০টায় হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে তার ধামগড় ইউনিয়নের আমৈরস্থ নিজ বাস ভবনে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন (ইন্নালিল্লাহি…রাজিউন)। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, ৬ ছেলে ১ মেয়ে ও অগণিত অসংখ্য নাতি-নাতনীসহ অগণিত গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। জীবদ্দশায় মরহুম তাজুল ইসলাম দীর্ঘ ৮ বছর বন্দর উপজেলাধীন ধামগড় ইউনিয়ন পরিষদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান হিসেবে অত্যন্ত নিষ্ঠার সাথে দায়িত্ব পালণ করেন।

এছাড়াও তিনি একই ইউনিয়নের ৫নং ওয়ার্ডে ২১ বছর মেম্বার হিসেবে ব্যাপক সুনাম অর্জন করেছেন। বিভিন্ন সময়ে তিনি এলাকার শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হতে শুরু করে সামাজিক ও রাজনৈতিক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে জড়িত ছিলেন। ব্যাক্তিগত জীবনেও তিনি ছিলেন উদার, নিঃস্বার্থ, নির্লোভ, পরোপকারী, সদা হাস্যোজ্জল ও মিষ্টভাষী একজন নির্ভীক সমাজকর্মী।