ঘরে বাইরে মাস্ক ব্যবহারের দাবিতে ক্যাব চট্টগ্রামের মানববন্ধন

35

নড়াইলকণ্ঠ ॥ “নিজে ভাল থাকি, সবাইকে ভালো রাখি” শ্লোগানে “ঘরের বাইরে মাস্ক পরি, বিপদমুক্ত ও নিরাপদ থাকি” দাবিতে মানববন্ধন করেছে চট্টগ্রাম কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব)। গতকাল সোমবার (১৪ সেপ্টেম্বর) নগরীর ঢাকা চট্টগ্রাম প্রবেশমূখ এ কে খান মোড়ে আয়োজিত মানববন্ধন ও গণজমায়েতে অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে বিভিন্ন বক্তারা বলেন, করোনা মহামারিতে অনেকে অতিআপনজন হারিয়েছেন। অনেকে পরিবারের উপার্জনক্ষম ব্যক্তিকে হারিয়েছেন। করোনার কারনে অনেকে চাকুরী হারিয়েছেন। চিকিৎসা ব্যবস্থা, শিক্ষা ও অর্থনীতি পুরোটাই ভেঙ্গে পড়েছে। কিন্তু ঘরের বাইরে গেলে মাস্ক পরলে এ সংক্রমণ ব্যাধি থেকে নিজেকে বাঁচাতে পারে ও পরিবারের আপনজনকে সুরক্ষা দিতে পারেন। মাস্ক ব্যবহারে সাধারণ মানুষের অসচেতনতার কারনে পুরো দেশ করোনার হুমকিতে আছে। সরকার মাস্ক বাধ্যতামুলক করে আইন ও নির্দেশনা দিলেও জনগণের মাঝে এ বিষয়ে কোন তৎপরতা নাই। তাই গণপরিবহনে মাস্ক ছাড়া যাত্রী না তোলা ও হাট, বাজার ও দোকানে মাস্ক ছাড়া বিক্রি নাই” বিষয়টি কঠোরভাবে মেনে চলার জন্য স্থানীয় প্রশাসন, আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ও সংশ্লিষ্ট সকলের প্রতি আহবান জানানো হয়।

ক্যাব আকবরশাহ থানার সভাপতি ও লিও ক্লাব সভাপতি ডাঃ মাসবাহ উদ্দীন তুহিনের সভাপতিত্বে ও ক্যাব ডিপিও জহুরুল ইসলামের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে সংহতি জানিয়ে বক্তব্য রাখেন, ক্যাব কেন্দ্রিয় কমিটির ভাইস প্রেসিডেন্ট এস এম নাজের হোসাইন, পাহাড়তলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মঈনুর রহমান, চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের সদ্য বিদায়ী কাউন্সিলর আবিদা আজাদ, পাহাড়তলী থানার সাব ইনসপেক্টর মনির হোসেন, ক্যাব মহানগরের যুগ্ন সম্পাদক মোহাম্মদ জানে আলম, ক্যাব সদরঘাট থানার সভাপতি শাহীন চৌধুরী, ক্যাব খুলসী থানা সভাপতি প্রকৌশলী লায়ন হাফিজুর রহমান, ক্যাব আকবর শাহ থানার সাধারন সম্পাদক দিদার প্রধান, ক্যাব পশ্চিম ষোলশহর ওয়ার্ড সভাপতি অধ্যাপক হুমায়ুন কবির, সাধারণ সম্পাতদক আখতার হোসেন, লায়ন ইয়ুথ এক্সচেঞ্জ চেয়ারম্যান লায়ন নবীউল হক সুমন, লিও জেলা সভাপতি এইচ এম হাকিম, ক্যাব পাঁচলাইশের আবদুল মাজেদ ভাষানী, ক্যাব পাহাড়তলীর হারুন গফুর ভুইয়া, ক্যাব আকবর শাহ থানার ডাঃ কিশোর কুমার আচায্য, নারী নেত্রী ইয়াছমিন প্রমুখ।

এ সময় বক্তারা বলেন, মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর নেতৃত্বে সরকার করোনা মহামারী থেকে জনগনকে সুরক্ষা দেবার জন্য নানাবিধ উদ্যোগ গ্রহন করেছেন। কিন্তু করোনা রোধে স্বাস্থ্যবিধি ও মাস্ক পরা বাধ্যতামুলক আইনের প্রয়োগে শিথিলতার কারনে দেশ পুনরায় করোনার ঝুঁকিতে পড়তে যাচ্ছে। ঘরের বাইরে মাস্ক পরা ও গণপরিবহন ও হাট বাজারে স্বাস্থ্যবিধি মানতে শিতিলতার কারনে আবারও লকডডাউনসহ নানা জঠিলতায় পুরো দেশেকে অর্থনীতিসহ সব বিষয়ে পঙ্গুত্ব বরণে বাধ্য হতে হবে। তাই এখনই সময় করোনা সংক্রান্ত স্বাস্থ্যবিধি কঠোর ভাবে মেনে চলতে জনগনকে বাধ্য করার জন্য স্থানীয় প্রশাসন, আইন প্রয়োগকারী সংস্থাগুলির যথাযথ উদ্যোগ নেবার আহবান জানানো হয়।

করোনা প্রতিরোধে “ঘরের বাইরে মাস্ক পরি, বিপদমুক্ত ও নিরাপদ থাকি” প্রচারণা কর্মসূচির আওতায় নগরীর গুরুত্বপুর্ন স্থান, টার্মিনাল ও বাজারগুলিতে প্রচারণা কর্মসুচির আওতায় এ ধরনের আয়োজন করা হচ্ছে। পরবর্তীতে অন্যান্য স্থানগুলিতে এ ধরনের প্রচারণা কর্মসূচির আয়োজন করা হবে।