নিখোঁজের ৩৮ঘন্টাপর ভেসে উঠলো লাশ (ভিডিও)

149

মধুমতী নদীতে ডুবে শিশুসন্তানসহ পুলিশ সদস্য নিখোঁজের ৩৮ঘন্টাপর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। রবিবার (৩০ আগস্ট) সকাল সাড়ে ৯টায় পারিবারিভাবে মধুমতির কালনা ঘাট থেকে প্রায় ২কিমি দক্ষিণে করফা নামক স্থান থেকে এ মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

মরদেহ গ্রামের বাড়ি চাচই এ নেয়ার পর এলাকাজুড়ে শোকের মাতম চলচ্ছে। একনজর দেখার জন্য হাজার হাজার মানুষ ভিড় করছে।

এদিকে জানাগেছে, গত শুক্রবার সন্ধ্যা সাড়ে ছয়টার দিকে মধুমতী নদীতে ঘুরতে গিয়ে নড়াইলের লোহাগড়ার কালনাঘাটে ট্রলার থেকে পড়ে নিখোঁজ হয় পুলিশ কনস্টেবল আবু মুসা রেজওয়ান (২৮) ও তাঁর ছয় মাস বয়সী শিশুপুত্র আনাস। আবু মুসা পুলিশ সদর দপ্তরে কর্মরত ছিলেন। তিনি লোহাগড়া উপজেলার জয়পুর ইউনিয়নের চাচই গ্রামের আজাদ মোল্লার ছেলে।

পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, মুসা তাঁর পরিবারের সদস্যদের নিয়ে কালনাঘাট এলাকায় শুক্রবার (২৮ আগস্ট) বিকেলে ট্রলার ভাড়া করে নদীতে ঘুরতে বের হন। ট্রলারে স্ত্রী, পুত্র ও আত্মীয়-স্বজনসহ আটজন ছিলেন। ঘাটের দিকে ফিরে আসার সময় নির্মাণাধীন সেতু এলাকায় ট্রলারের ইঞ্জিন বন্ধ হয়ে যায়। নদীতে প্রচন্ড স্রোত ছিল। স্রোতের ধাক্কায় কোলে থাকা শিশুপুত্র আনাসসহ মুসা ট্রলার থেকে নদীতে পড়ে যান। এরপর থেকে তারা নিখোঁজ হন।

উল্লেখ্য, নিখোঁজ পুলিশ সদস্য ও তার শিশুপুত্র আনাসের লাশ উদ্ধার করতে বাংলাদেশ নৌবাহিনীর খুলনা অঞ্চলের সাত সদসস্যের ডুবুরি দল ও বরিশাল থেকে আসা ফায়ার সার্ভিসের পাঁচ সদস্যের ডুবুরি দল গত শনিবার সকাল থেকে কাজ শুরু করে। প্রায় দু’দিন ধরে উদ্ধার কাজ চালিয়েও তারা উদ্ধার করতে পারেনি তাদের মরদেহ।