ঈদের দিনে কালিয়ায় দু’পক্ষের ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া, গুলি বর্ষণ

35

নড়াইলকণ্ঠ : নড়াইলের কালিয়ায় ঈদ-উল-আযহার নামাজ আদায়কে কেন্দ্র করে বিবাদমান দু’গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এ সময় বাদশা সরদারের বিরুদ্ধে গুলি বর্ষণ করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

ঈদের দিন শনিবার (০১ আগস্ট) সকাল ৮টায় উপজেলার কলাবাড়ীয়া (শিবপুর) গ্রামে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও গুলি বর্ষণের ঘটনা ঘটে। এতে এলাকায় চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সুত্র থেকে জানা যায়, উপজেলার কলাবাড়ীয়া গ্রামের শিবপুর পাড়ার নূরু সরদারের ছেলে বাদশা সরদার ও তার প্রতিবেশী হাসমত তালুকদারের সঙ্গে স্থানীয় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে দীর্ঘদিন ধরে বিরোধ চলে আসছে। দু’পক্ষই স্থানীয় সরদার বাড়ী জামে মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করতে গেলে তাদের মধ্যে ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া ও গুলি বর্ষণের ঘটনা ঘটে। নাম প্রকাশ না করা শর্তে একাধিক প্রত্যক্ষদর্শী বলেন, বিবাদমান দু’টি গ্রুপের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া চলা কালে বাদশা সরদার অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র দিয়ে ২/৩ রাউন্ড গুলি বর্ষণ করে। তারা অভিযোগ করে আরও বলেন,ক্ষমতাশীন দলের নাম ভাঙ্গিয়ে অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র ব্যবহার করে বাদশা সরদার এলাকায় ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করছে। যে কারণে স্থানীয় লোকজন তার ভয়ে মুখ খুলতে সাহস পায় না। ঘটনার পর থেকে গ্রামটিতে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। যে কোন সময় রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা প্রকাশ করছেন স্থানীয়রা।

এ প্রসঙ্গে বাদশা সরদার মুঠোফোনে যুগান্তরকে বলেন,‘আমাকে প্রতিপক্ষ হাসমত তালুকদার গুলি করেছে। একটি গুলির খোশা পুলিশ উদ্ধার করে নড়াগাতী থানায় নিয়ে গেছে।’

একই বিষয় উপজেলার নড়াগাতী থানার ওসি রোকসানা খাতুন যুগান্তরকে জানান,‘দু’টি গ্রুপই একজন অন্যজনকে দোষারুপ করছেন। তবে অপ্রীতিকর কোন ঘটনা ঘটেনি। গুলি করার কোন নমুনা পাওয়া যায়নি।’