লা লিগার ম্যাচে চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদ

59

প্রস্তুত মঞ্চে আলো ছড়ালো রিয়াল মাদ্রিদ। শেষ দিকে কিছুটা ভুগতে হলেও কাঙ্ক্ষিত জয় তুলে নিল জিনেদিন জিদানের দল। দুই বছর পর লা লিগা শিরোপা জয়ের আনন্দে ভাসলো স্পেনের সফলতম দলটি।

নড়াইল কণ্ঠ স্পোর্ট ডেস্ক : সমীকরণটা সহজ ছিল। জিতলেই এক ম্যাচ হাতে রেখে চ্যাম্পিয়ন। সহজ হিসেবটা বৃহস্পতিবার রাতে মিলিয়ে ফেলল রিয়াল মাদ্রিদ। বৃহস্পতিবার লা লিগার ম্যাচে শক্তিশালী ভিয়ারিয়ালকে ২-১ গোলে হারিয়ে লিগ শিরোপা জিতে নিল জিনেদিন জিদানের দল। অবশ্য এদিন হারলেও চ্যাম্পিয়ন হতো রিয়াল। অপর ম্যাচে যে হেরে বসেছে বার্সেলোনা!

কাল রাতে ঘরের মাঠ ন্যু ক্যাম্পে দশ জনের ওসাসুনার কাছে ২-১ গোলে হেরে গেছেন লিওনেল মেসিরা। এই হারের পর ৩৭ ম্যাচে বার্সার সংগ্রহ ৭৯ পয়েন্ট। সাত পয়েন্ট বেশি নিয়ে তিন মৌসুম পর লিগ চ্যাম্পিয়ন হলো শীর্ষে থাকা রিয়াল মাদ্রিদ। তিনে থাকা অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের অর্জন ৫৯ পয়েন্ট। তাদের পেছনে আছে সেভিয়া (৬৭) ও ভিয়ারিয়াল (৫৭)।

নিজেদের মাঠ আলফ্রেডো ডি স্টিফানো স্টেডিয়ামে রিয়াল মাদ্রিদের দুটো গোলই করেছেন করিম বেনজেমা। মৌসুমজুড়ে দলের ঘানি টানা ফরাসি স্ট্রাইকার এদিনও দুর্দান্ত পারফর্ম করেছেন। ২৯ মিনিটে রিয়ালকে লিড এনে দেন বেনজেমা। ৭৭ মিনিটে পেনাল্টি থেকে ব্যবধান দ্বিগুণ করেন তিনি। লিগে এটা বেনজেমার ২১তম গোল। ৮৩ মিনিটে ইবোরার গোলে হারের ব্যবধান কমিয়ে আনে ভিয়ারিয়াল।

রিয়ালের শিরোপা জয়ের উৎসব কয়েকগুণ বেড়ে যায় যখন তারা শুনল লিগের অন্য ম্যাচে অঘটনের শিকার হয়েছে বার্সেলোনা। পরিচিত ভেন্যুতে ম্যাচের ৮০ শতাংশ বল দখলে রেখে খেলেও নিজেদের হারিয়ে খুঁজেছে কাতালানরা। এমন ম্যাচের শুরুতেই গোল হজম করে বসেন মেসিরা। ১৫ মিনিটে বার্সার জাল কাঁপিয়ে ওসাসুনাকে উচ্ছ্বাসে ভাসান আরনাইজ।

বিরতির পর অধিনায়ক লিওনেল মেসির গোলে সমতায় ফেরে স্বাগতিক শিবির। একটু পরই ম্যাচে নাটকীয় মোড়। সরাসরি লাল কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন ওসাসুনা ডিফেন্ডার গাল্লেগো পুইজসেচ। কিন্তু দশজনের প্রতিপক্ষকে পেয়েও সুযোগ কাজে লাগাতে পারেনি বার্সা। উল্টো ম্যাচের শেষ মুহূর্তে দ্বিতীয় গোল খেয়ে বসে তারা। ওসাসুনার হয়ে জয়সূচক গোলটি করেন তোরেস।

লা লিগায় ন্যু ক্যাম্পে ৪৩ ম্যাচ পর হারল বার্সেলোনা। এই হারে শিরোপা ধরে রাখার ব্যর্থ অভিযান শেষ হলো তাদের। যদিও বেশ কয়েকদিন ধরে রেফারিং ও ভিএআর নিয়ে রেফারিদের রিয়াল মাদ্রিদের পক্ষপাতিত্বের অভিযোগ তুলে আসছিলেন মেসিরা। আশ্চর্যজনকভাবে এদিনও ভিএআর থেকে বিতর্কিত এক পেনাল্টি পায় জিদানের দল। এনিয়ে বার্সা নতুন করে কিছু বলে কিনা সেটাই দেখার।

করোনাভাইরাস পরবর্তী লা লিগায় নতুন শুরুর পর টানা ১০ ম্যাচ জিতেছে রিয়াল মাদ্রিদ। তাতেই নিশ্চিত হলো লিগে তাদের ৩৪তম শিররোপা। সবশেষ ২০১৬-১৭ মৌসুমে লিগ চ্যাম্পিয়ন হয় লস ব্ল্যাঙ্কোসরা। শিরোপা জয়ের সংখ্যায় রিয়ালের পেছনে আছে বার্সেলোনা। ২৬ বার লিগ শিরোপা জিতেছে কাতালান ক্লাবটি। দশটি শিরোপা জিতে তৃতীয়তে আছে মাদ্রিদের আরেক ক্লাব অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদ। অ্যাথলেটিক বিলবাও আটবার লিগ জিতেছে।

খেলোয়াড় ভূমিকায় নিজেকে বহু বছর আগেই প্রমাণ করেছেন জিদান। এখন কোচ কোচ হিসেবে প্রতিনিয়ত নিজের জাত চিনিয়ে যাচ্ছেন ফরাসি কিংবদন্তি। রিয়ালকে এনিয়ে ১০টি শিরোপা উপহার দিলেন জিজু। তার অধীনে দুটি করে লা লিগা, কোপা ডেল রে, উয়েফা সুপার কাপ ও ক্লাব বিশ্বকাপ জিতেছে রিয়াল। স্পেনের বাইরে জিদানের অধীনে চ্যাম্পিয়নস লিগে টানা তিনবার ট্রফির স্বাদ পেয়েছে মাদ্রিদ জায়ান্টরা।