গবেষণা: বাংলাদেশ ডিএনএ’র কারণে কোভিড ঝুঁকি কম!

70

নড়াইল কণ্ঠ ডেস্ক : ডিএনএ’র কারণে কোভিড-১৯ ঝুঁকি কম বাংলাদেশের মানুষের। এ তথ্য জানিয়েছে সুইডেনের স্টকহোমের বিখ্যাত গবেষণা প্রতিষ্ঠান ক্যারোলিনস্কা ইন্সটিটিউট।- নিউইয়র্ক টাইমস।

গবেষকরা বলেন, ডিএনএ’র সাথে একটা যোগসূত্র পাওয়া যাচ্ছে। ইউরোপে মানুষের মধ্যে যে ডিএনএ সেটি থেকে ভিন্ন বাংলাদেশিদের ডিএনএ। এই ডিএনএ’র আদি ভার্সন (প্রস্তর যুগের) ক্ষতিকর হলেও বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ায় যেটি দেখা যায় তা ভাইরাস প্রতিরোধে আরও বেশি কার্যকরী। এই ডিএনএ’র আদি ভার্সন প্রায় ৬০ বছর আগের, যা বাংলাদেশিরা বহন করছে।

গবেষণাটির সঙ্গে যুক্ত না থাকা প্রিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রজনন বিজ্ঞান বিশেষজ্ঞ জোশুয়া আকি এই ফলাফলকে সমর্থন করে বলেছেন, ‘শঙ্কর প্রজননের ৬০ হাজার বছর আগের এই প্রভাব আজও মানুষের শরীরে কাজ করতে পারে।’

গতকাল শনিবার গবেষণাটি অনলাইনে প্রকাশ করা হয়েছে। নিউইয়র্ক টাইমসের বিজ্ঞান বিষয়ক পাতায় এ নিয়ে বিশদ প্রতিবেদন ছাপা হয়েছে।

জিনোমের এই অংশ ক্রোমোজোম ৩-এ ছয়টি জিনে ছড়িয়ে থাকে। যাকে গবেষকেরা মানব ইতিহাসের ‘ধাঁধাময় ভ্রমণ’ বলেছেন। দক্ষিণ এশিয়ার প্রায় এক তৃতীয়াংশ মানুষ উত্তরাধিকার সূত্রে অংশটি পেয়ে থাকে। নতুন এই গবেষণায় ক্যারোলিনস্কা ইন্সটিটিউটের বিজ্ঞানী হুগো জেবার্গ নেতৃত্ব দেন।