স্পেনে প্রায় চার’শ বছর ধরে চলে আসছে শয়তান তাড়ানোর উৎসব

64

নড়াইল কণ্ঠ ডেস্ক :স্পেনে প্রায় চারশ বছর ধরে পালিত হচ্ছে শয়তান তাড়ানোর উৎসব। ১৬২০ সাল থেকে প্রতিবছর শিশুদের ওপর থেকে শয়তানের কু-প্রভাব তাড়াতে উত্তর স্পেনের কাসট্রিলো ডি মুরসিয়া শহরে এক অদ্ভুত উৎসবের আয়োজন করা হয়। এই উৎসবের নাম এল সাল্টো ডেল কোলাচো বা এল কোলাচো। স্প্যানিশ থেকে বাংলা করলে এর অর্থ দাঁড়ায়- শয়তানের লাফ। দ্য গার্ডিয়ান

প্রতি বছর জুন মাস মহাসমারোহে কাসট্রিলো ডি মুরসিয়া শহরে এই উৎসব পালিত হয়। শহরের ক্যাথলিক রীতির অনুসারী বাসিন্দারা মনে করেন এর মাধ্যমে তাদের নবাগত সন্তানের ওপর থেকে শয়তানের কু-প্রভাব দূর হয়।

উৎসবে শ্বেতশুভ্র বিছানায় সারি সারি করে শুইয়ে রাখা হয় সদ্য জন্মানো থেকে শুরু করে এক বছর বয়সি শিশুদের। একজন অদ্ভুত পোশাক পরিহিত লোক শিশুদের ওপর দিয়ে লাফিয়ে পার হন। স্থানীয় স্যানটিসিমো স্যাকরামেন্টো ডি মিনারোভার পাদ্রীরা উৎসবের আয়োজন করে। যিনি শিশুদের ওপর দিয়ে দৌড়ান তিনি এই পাদ্রী সম্প্রদায়েরই একজন। তার সাজ পোশাক থাকে শয়তানের মতো। একহাতে একটি চাবুক এবং অন্যহাতে ক্যাসটেন্টোস (এক রকম স্প্যানিশ বাদ্য যন্ত্র) থাকে।উৎসবে যে সব শিশুদের শুইয়ে রাখা হয় তাদের প্রত্যেকের জন্ম এই শহরে। কারণ এই শহরের বাইরে জন্ম নেওয়া কোনো শিশু উৎসবে অংশ নিতে পারে না।

উৎসবের দিন শহরের বাসিন্দারা সন্তানের মঙ্গল কামনা করে বাড়ির দেয়ালে সাদা কাপড় ঝুলিয়ে দেন। সকাল ছয়টায় এই উৎসব শুরু হয়ে একশ শিশুর ওপর দিয়ে লাফানোর আগ পর্যন্ত চলে। শিশুদের ওপর দিয়ে লাফানো শেষ হলে এরপর শয়তানরূপী পাদ্রী যুবক-যুবতীদের ধাওয়া দেয়। যতক্ষণ শয়তান দৌড়ে যুবক-যুবতীদের ধরতে না পারে ততক্ষণ এই দৌড় চলমান থাকে।

গত চারশ বছর ধরে নিয়ম মেনে শহরটিতে এই উৎসব পালিত হয়ে আসছে। স্থানীয়রা জানান, এই দীর্ঘ সময়ে কোনো শিশু কোনো রকম দুর্ঘটনার শিকার হয়নি।