আম্পান পরবর্তী দূর্যোগপূর্ণ এলাকার মানুষের পাশে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৫৫ পদাতিক ডিভিশন

110

নড়াইল কণ্ঠ : সুপার সাইক্লোন আম্পান পরবর্তী দুর্যোগ ও করোনা মোকাবেলায় বেসামরিক প্রশাসনকে সর্বাত্মক সহায়তা প্রদান করছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৫৫পদাতিক ডিভিশনের সেনাসদস্যরা।

এরই ধারাবাহিকতায় শনিবার (২৩ মে) দিনব্যাপী বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৫৫পদাতিক ডিভিশনের উর্দ্ধতন কর্মকর্তাবৃন্দ তাদের আওতাধীন ১০টি জেলা পরিদর্শন করে সুপার সাইক্লোন আম্পানে ক্ষয়ক্ষতি পরিমাণ নিরুপন করেছেন। বিশেষ করে বাংলাদেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চল সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত সাতক্ষীরা, যশোর এবং খুলনাঞ্চলের সার্বিক পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণের মাধ্যমে ইতিমধ্যে সেনাবাহিনীর ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী উদ্ধার কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে।

এদিকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ৫৫পদাতিক ডিভিশনের সেনা সদস্যরা ঘূর্ণিঝড় আম্পান কবলিত এলাকার অসহায় ও দুস্থ মানুষদের মাঝে খাদ্য সহায়তা ও চিকিৎসা সেবা প্রদানের পাশাপাশি তারা সেখানে রাস্তাঘাট ও ঘরবাড়ির উপর উপড়ে পড়া গাছপালা সরিয়ে রাস্তাঘাট চলাচল উপযোগী এবং ঘরবাড়ি মেরামতের কাজে সহায়তা প্রদান করে।

এছাড়াও আম্পানের তান্ডবে ক্ষতিগ্রস্থ মসজিদ, বেড়িবাঁধ এবং মাছের খামার মেরামত ও বিশুদ্ধ পানি সরবরাহ করে। করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় নিয়মিত টহল ও বিভিন্ন জনসচেতনতা সৃষ্টিমূলক কার্যক্রমের পাশাপাশি ঈদুল ফিতরকে সামনে রেখে মুজিববর্ষে এতিম ও দুস্থশিশুদের জন্য সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে ঈদ উপহার তুলে দেয়া হয় ।

৫৫ পদাতিক ডিভিশনের দায়িত্বশীল একটি সূত্র থেকে বলা হয়েছে, “চলমান করোনা পরিস্থিতি এবং সুপার সাইক্লোন আম্পান এর ধ্বংসযজ্ঞ মোকাবেলায় বাংলাদেশ সেনাবাহিনী স্বচ্ছতার সাথে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে এবং ভবিষ্যতেও তাদের এই কাজের ধারা অব্যাহত থাকবে।