‘দরিদ্র মানুষের বরাদ্দ যারা মেরে খান তারাই আসল ভিক্ষুক’ -মাশরাফী

3349
All-focus

নড়াইল কণ্ঠ : ‘আমার পেছনে পেছনে ঘুরে বেড়ানোর দরকার নেই। যার যার জায়গা থেকে কাজ করেন। কাজের মধ্যদিয়ে আমার সঙ্গে সম্পর্ক হবে। আমার পেছনে ঘুরে যদি কোন অপকর্ম করেন, তখন কিন্তু আমি ছাড়বো না। তখন আমার সঙ্গে সর্ম্পক নষ্ট হবে।’

মঙ্গলবার (১৭ মার্চ) বিকালে বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের সফল অধিনায়ক ও জাতীয় সংসদ সদস্য মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা তাঁর নির্বাচনী এলাকা নড়াইল-২ এ মুজিববর্ষের এক সভায় ছাত্রলীগ কর্মীদের উদ্দেশ্যে এসব কথা বলেন।

ভিক্ষুকদের পুনর্বাসণের জন্য উপকরণ দেওয়ার সময় তিনি আরো বলেন, ‘যারা চেয়ারে বসে ক্ষমতার জোরে জনগণের টাকা মেরে খান, তারাই ভিক্ষুক। দরিদ্র মানুষের বরাদ্দে হাত দেন, তারাই হলো আসল ভিক্ষুক। দরিদ্র মানুষের জন্য খেজুর আসে, দুম্বা আসে, তা ভিক্ষুকেরা জানে না, দরিদ্র মানুষ জানে না। চেয়ারে যারা আছেন, তারা ভাগ-বাটোয়ারা করে নেন। বিধবা ভাতা, বয়স্কভাতার তালিকা প্রশাসনকে ঠিকমতো করতে দেওয়া হচ্ছে না। যার যেটায় হক, তাকে সেটা দিতে হবে।’

এ সময় তিনি লোহাগড়া উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে পুনর্বাসিত ভিক্ষুকদের মাঝে ছাগল, ওজন মাপা যন্ত্রসহ বিভিন্ন প্রকার উপকরণ বিতরণ করেন।

প্রশাসন ও রাজনীতিকদের উদ্দেশ্যে নড়াইল-২ আসনের এমপি মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা বলেন, ‘মাদক ব্যবসায়ী ও দুষ্ট লোকদের আশ্রয়-প্রশ্রয় দেবেন না। লোহাগড়ায় একজন সাবেক চেয়ারম্যানকে হত্যা করা হলো। তার পরিবার শেষ হলো। যারা হত্যা করেছে, তারাও শেষ হবে। দলের নেতা-কর্মী সবাইকে আমি সম্মান করি। চেয়ারই কি ,মুখ্য বিষয়?? চেয়ারের জন্য একজন মানুষ করতে হবে?? তুচ্ছ ঘটনায় হামলা, সংঘর্ষ এগুলো বন্ধ করতে হবে। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নমূলক কাজগুলোকে সামনে নিয়ে আসেন। হামলা, সংঘর্ষ, খুন এগুলো চলতে দেওয়া যাবে না। মাদক, ধর্ষণ চলবে না। এর প্রতিরোধে প্রশাসনকে উদ্যোগ নিতে হবে। রাজনীতিকদের এগিয়ে আসতে হবে।’

এ সময় নোভেল করোনাভাইরাস প্রতিরোধে মাশরাফী বলেন, ‘আল্লাহর রহমতে নড়াইলে এখনো কেউ করোনায় আক্রান্ত হয়নি। এর প্রস্তুতি নিতে হবে। এ জন্য ১০০ শয্যার আইসোলেশন ইউনিট প্রস্তুত করা হয়েছে। হাসপাতালে ১০ শয্যা প্রস্তুত রয়েছে।’

ভিক্ষুকদের মাঝে উপকরণ বিতরণ শেষে মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে লোহাগড়া উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে কেক কাটেন। এরপর তিনি লোহাগড়া মডেল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন করেন। এখান থেকে তিনি লোহাগড়া সরকারি মহাবিদ্যালয়ের ৬তলা একাডেমি ভবনের ভিত্তিপ্রস্তুর স্থাপন করেন। কলেজ ক্যাম্পসে তিনি ছাত্রলীগের আয়োজনে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে কেক কাটেন। এরপর তিনি লোহাগড়া-ইতনা-রাধানগর সড়ক উদ্বোধন করেন। পরে তিনি সম্প্রতি নিহত সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান বদর খন্দকারের বাড়িতে গিয়ে স্বজনদের দেখা করেন এবং সান্ত¦না দেন।

এসব কর্মসূচিতে মাশরাফী বিন মোর্ত্তজার সাথে ছিলেন, নড়াইল জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক নিজাম উদ্দিন খান নিলু, লোহাগড়া উপজেলার চেয়ারমান এস এম হান্নান রুনু, ইউএনও মুকুল মৈত্র, লোহাগড়া পৌর মেয়র আশরাফুল ইসলাম, লোহাগড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. আলমগীর হোসেন, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুন্সি আলাউদ্দিন, সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ মশিয়ূর রহমান প্রমুখ।

এরপর রাতে নড়াইল সদরে ফিরে মুজিববর্ষ উপলক্ষে বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ স্টেডিয়ামে আতশবাজি প্রদর্শন উদ্বোধন করেন মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা।

এর আগে সকাল সাড়ে ৯টায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এঁর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল ও প্রতিকৃতিতে মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা পুষ্পমাল্য অর্পণ করেন। সেখান থেকে তিনি নড়াইল সদর হাসপাতালে বিনামূল্যে চিকিৎসা সেবা উদ্বোধন করেন এবং হাসপাতালের চিকিৎসক ও নার্সদের সাথে নোভেল করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে করণীয় বিষয়ে মতবিনিময় করেন। এরপর তিনি নড়াইল পৌর ভবনের ভিত্তিপ্রস্তুর স্থাপন করেন।