নড়াইলে ১৬ লক্ষ ১৯ হাজার ৭৩০টি নতুন বই বিতরণ

137

নড়াইল কণ্ঠ ॥ ২০২০ শিক্ষাবর্ষের জন্য দেশব্যাপী বই উৎসব পালিত হচ্ছে আজ। তারই ধারবাহিকতায় নড়াইল জেলায় বছরের প্রথম দিনে উৎসবমুখর পরিবেশে ১৬ লক্ষ ১৯ হাজার ৭৩০টি বিনামূল্যে নতুন বই বিতরণ করা হচ্ছে।
এর মধ্যে প্রাক ও প্রাথমিক পর্যায় শিক্ষার্থীদের মাঝে ৩ লক্ষ ৯২ হাজার ৪০০ নতুন বই বিতরণ করা হচ্ছে। ১২ লক্ষ ২৭ হাজার ৩৩০ এবতেদায়ী ও মাধ্যমিক স্তর পর্যায় বিতরণ করা হচ্ছে। এরমধ্যে এবতেদায়ী স্তরের শিক্ষার্থীদের জন্য ১ লাখ ১৭ হাজার ৬০, মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের জন্য ৯ লাখ ২১ হাজার ২৪০, মাদ্রাসা পর্যায় ১ লক্ষ ৬৫ হাজার ৬৩০, কারিগরি পর্যায় এসএসসি ভোকেশনালে ১৬ হাজার ৮০ দাখিল ভোকেশনাল পর্যায় ৭ হাজার ৩২০টি বই বিনা মূল্যে বিতরণ করা হচ্ছে।
বুধবার (০১ জানুয়ারি) সকাল ১১টায় নড়াইল সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় প্রাঙ্গনে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো: জাকির হোসেন সিকদার সভাপতিত্বে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দিয়ে বিনামূল্যে পাঠ্যপুস্তক বিতরণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি নড়াইলের জেলা প্রশাসক আনজুমান আরা।
এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সোহরাব হোসেন বিশ্বাস, সাবেক জেলা পরিষদরে প্রশাসক, জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট সুবাস চন্দ্র বোস, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুদ রানা, জেলা শিক্ষা অফিসার ছায়েদুর রহমান।
উল্লেখ্য, বছরের প্রথম দিনে দেশের ৪ কোটি ২০ লাখেরও বেশি প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের মাঝে নতুন বই বিতরণ করা হচ্ছে আজ। ২০২০ শিক্ষাবর্ষের জন্য দেশব্যাপী বই উৎসব পালিত হচ্ছে আজ। প্রতি বছরের ন্যায় বছরের প্রথম দিনে বুধবার (০১ জানুয়ারি) দেশের ৪ কোটি ২০ লাখেরও বেশি প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের মাঝে ৩,৫৩,১৪৪,৫৫৪টি বই বিতরণ করা হচ্ছে।
গত মঙ্গলবার (৩১ ডিসেম্বর) গণভবনে আনুষ্ঠানিকভাবে প্রাথমিক ও মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের হাতে বই তুলে দিয়ে বিনামূল্যে পাঠ্যপুস্তক বিতরণ কর্মসূচির উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।
২০২০ শিক্ষাবর্ষের জন্য প্রাক-প্রাথমিক থেকে দশম শ্রেণি পর্যন্ত ৪ কোটি ২৬ লাখ ১৯ হাজার ৮৬৫ জন শিক্ষার্থীর জন্য ৩৫ কোটি ৩১ লাখ ৪৪ হাজার ৫৫৪টি বই ছাপানো হয়েছে। এর মধ্যে প্রাথমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের জন্য ১০ কোটি ৫৪ লাখ ২ হাজার ৩৭৫ এবং মাধ্যমিক স্তরের শিক্ষার্থীদের জন্য ২৪ কোটি ৭৭ লাখ ৪২ হাজার ১৭৯টি বই বিনা মূল্যে বিতরণ করা হচ্ছে।
এ বছর প্রাথমিক স্তরের ২ কোটি ২ লাখ ৮৪ হাজার ৫১ শিক্ষার্থীর মাঝে ৯ কোটি ৮৫ লাখ ৫ হাজার ৪৮০টি পাঠ্যপুস্তক এবং প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণির ৩২ লাখ ৭১ হাজার ৫৭৮ জন শিক্ষার্থীর মাঝে ৩৩ লাখ ৩৭ হাজার ৬৩৮টি আমার বই ও ৩৩ লাখ ৩৭ হাজার ৬৩৮টি অনুশীলন খাতা বিতরণ করা হবে।
এছাড়া ক্ষুদ্র নৃ-গোষ্ঠীর প্রাক-প্রাথমিক শ্রেণির শিক্ষার্থীদের মাঝে ২৮,৭৩৫টি আমার বই ও ২৮,৭৩৫টি অনুশীলন খাতা এবং ১ম শ্রেণির ৭৪,৮৪৭ টি, ২য় শ্রেণির ৭৩,৬৩৫ টি, ৩য় শ্রেণির ২৪,১৫১ টি পাঠ্যপুস্তক বিতরণ করার কথা রয়েছে।
আপৎকালীন জরুরী প্রয়োজনে উপজেলা-থানা পর্যায়ে বাফার স্টকে ২ শতাংশ বই বরাদ্দ রাখা আছে। মাধ্যমিক স্তরে ও মাদরাসার দাখিল পর্যায়ের শিক্ষার্থীদের জন্য ছাপানো হয়েছে ২৪ কোটি ৭৭ লাখ ৪২ হাজার ১৭৯টি বই। ইবতেদায়ি (মাদরাসার প্রাথমিক) স্তরের জন্য ছাপানো হয়েছে ২ কোটি ৩২ লাখ ৪৩ হাজার ৩৫টি বই। এসএসসি ভোকেশনালের জন্য ১৬ লাখ ৩ হাজার ৪১১টি বই।
এইচএসসি বিএম ভোকেশনালের জন্য ২৭ লাখ ৬ হাজার ২৮টি বই এবং দাখিল ভোকেশনালের জন্য ছাপানো হয়েছে এক লাখ ৬৭ হাজার ৯৬৫টি বই।
২০১০ সাল থেকে বর্তমান সরকার বিনামূল্যে পাঠ্যপুস্তক বিতরণ করা হচ্ছে। ২০১০ শিক্ষাবর্ষে ২ কোটি ৭৬ লাখ ৬২ হাজার ৫২৯ জন শিক্ষার্থীকে ১৯ কোটি ৯০ লাখ ৯৬ হাজার ৫৬১টি; ২০১১ শিক্ষাবর্ষে ৩ কোটি ২২ লাখ ৩৬ হাজার ৩২১ জন শিক্ষার্থীকে ২৩ কোটি ২২ লাখ ২১ হাজার ২৩৪টি; ২০১২ শিক্ষবর্ষে ৩ কোটি ১২ লাখ ১৩ হাজার ৭৫৯ জন শিক্ষার্থীর মধ্যে ২২ কোটি ১০ লাখ ৬৮ হাজার ৩৩৩টি বই; ২০১৩ শিক্ষাবর্ষে ৩ কোটি ৬৮ লাখ ৮৬ হাজার ১৭২ জন শিক্ষার্থীকে ২৬ কোটি ১৮ লাখ ৯ হাজার ১০৬টি; ২০১৪ শিক্ষাবর্ষে ৪ কোটি ৩৩ লাখ ৫৩ হাজার ২০১ জন শিক্ষার্থীকে ৩১ কোটি ৭৮ লাখ ১২ হাজার ৯৬৬টি বই বিতরণ করা হয়েছে।
২০১৫ শিক্ষাবর্ষে ৪ কোটি ৪৪ লাখ ৫২ হাজার ৩৩৭ শিক্ষার্থীর মধ্যে ৩২ কোটি ৬৩ লাখ ৪৭ হাজার ৯২৩টি; ২০১৬ শিক্ষাবর্ষে ৪ কোটি ৪৪ লাখ ১৬ হাজার ৭২৮ জন শিক্ষার্থীকে ৩৩ কোটি ৩৭ লাখ ৬২ হাজার ৭৬০টি বই; ২০১৭ শিক্ষাবর্ষে ৪ কোটি ২৬ লাখ ৩৫ হাজার ৯২৯ জন শিক্ষার্থীকে ৩৬ কোটি ২১ লাখ ৮২ হাজার ২৪৫টি; ২০১৮ শিক্ষাবর্ষে ৪ কোটি ৩৬ লাখ ৯৮ হাজার ৬৬৩ শিক্ষার্থীকে ৩৫ কোটি ৪২ লাখ ৯০ হাজার ১৬২টি এবং ২০১৯ শিক্ষাবর্ষে ৪ কোটি ২৬ লাখ ১৯ হাজার ৮৬৫ জন শিক্ষার্থীকে ৩৫ কোটি ২১ লাখ ৯৭ হাজার ৮৮২টি বই বিতরণ করা হয়েছে।