ঢাকা উত্তরে আ.লীগের মেয়র প্রার্থী আতিকুল, দক্ষিণে তাপস

80

নড়াইল কণ্ঠ : বাংরাদেশ আওয়ামী লীগ তার দলীয় প্রার্থী হিসেবে ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে দলীয় প্রার্থীদের নাম ঘোষণা করেছে। এতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে ঢাকা উত্তরে মনোনয়ন পেয়েছেন বর্তমান মেয়র আতিকুল ইসলাম এবং ঢাকা দক্ষিণে প্রার্থী করা হয়েছে শেখ ফজলে নূর তাপসকে, যিনি ঢাকা-১০ আসনের সংসদ সদস্য।
আজ রবিবার (২৯ ডিসেম্বর) ধানমন্ডিতে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ সভাপতির কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে তাদের নাম ঘোষণা করেন দলটির সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহণ ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। এছাড়া দুই সিটিতে আওয়ামী লীগের কাউন্সিলর প্রার্থীদের নামও ঘোষণা করেন দলটির সাধারণ সম্পাদক।
ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে দলীয় প্রার্থী চূড়ান্ত করতে গতকাল আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ড বসলেও কারও নাম ঘোষণা করা হয়নি।
গতকাল শনিবার বৈঠক শেষে ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেছিলেন, ‘আমরা বিচার বিশ্লেষণ করছি, পর্যালোচনা করছি। নেত্রী নিজের সোর্স থেকেও খোঁজ নিচ্ছেন, গোয়েন্দা সংস্থার রিপোর্ট নেওয়া হয়েছে। সব কিছু বিচার বিশ্লেষণ করতে আমাদের একটু সময় লাগছে। রবিবার সকাল ১১টায় ধানমন্ডিতে সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে উভয় সিটির মেয়র ও কাউন্সিলর পদে যাদের মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে, তাদের নাম ঘোষণা করা হবে।’
রবিবার নাম ঘোষণা করার নির্ধারিত সময়ের আগেই আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে হাজির হন ঢাকা উত্তরে মেয়র পদে মনোনয়নপ্রত্যাশী আতিকুল ইসলাম ও দক্ষিণের শেখ ফজলে নূর তাপস।
ধানমন্ডি কার্যালয়ে উপস্থিত আওয়ামী লীগের কয়েকজন নেতা জানান, প্রার্থীদের নাম ঘোষণার আগেই সকাল সাড়ে ১০টার দিকে নেতাকর্মীদের নিয়ে কার্যালয়ে যান ফজলে নূর তাপস। পরে বেলা পৌনে ১১টার দিকে বিশাল শোডাউন নিয়ে কার্যালয়ে হাজির হন উত্তরের বর্তমান মেয়র আতিকুল ইসলাম।
এবারও ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে মেয়র পদে বর্তমান মেয়র সাঈদ খোকন মনোনয়ন প্রত্যাশা করলেও নৌকার টিকিট পাননি। তার সঙ্গে এবার এই সিটিতে মেয়র পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হওয়ার দৌড়ে আরও ছিলেন হাজী মো. সেলিম, আওয়ামী লীগের আইন সস্পাদক আইনজীবী নজিবুল্লাহ হিরু, মুক্তিযোদ্ধা কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের সাবেক মহাসচিব এমএ রশিদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাবেক সভাপতি হাজী আবুল হাসনাত, বঙ্গবন্ধু পরিষদের সভাপতি আশরাফ হোসেন সিদ্দিকী এবং শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদ ঢাকা মহানগর শাখার উপদেষ্টা মো. নাজমুল হক। শেষ পর্যন্ত শেখ ফজলে নূর তাপসের হাতেই তুলে দেওয়া হয় নৌকার টিকিট।
বঙ্গবন্ধুর ভাগ্নে শেখ ফজলুল হক মনির ছেলে ব্যারিস্টার তাপস এখন তৃতীয় মেয়াদে ঢাকা-১০ আসনের সংসদ সদস্য। বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের নেতৃত্বেও আছেন তিনি।
অন্যদিকে গত ২৮ ফেব্রুয়ারির উপ-নির্বাচনে জয়ী হয়ে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়রের চেয়ারে বসা গার্মেন্ট ব্যবসায়ী আতিকুল ইসলাম এবারও আওয়ামী লীগের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পেয়েছেন।
আতিকুল ছাড়াও ঢাকা উত্তরে মেয়র হতে আরও ১১ জন মনোনয়নপত্র তুলেছিলেন। তারা হলেন বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক শহীদুল্লাহ ওসমানী, ভাষানটেক থানা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি ইয়াদ আলী ফকির, ১৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সদস্য মো. জামাল ভূইয়া, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সহ-সভাপতি মো. কুতুবউদ্দিন, আওয়ামী লীগের গ্রীস শাখার সহ-সভাপতি মো. ইদ্রিস আলী মোল্লা, যুবলীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক সালাউদ্দিন মাহমুদ, আওয়ামী লীগের সাবেক ধর্ম বিষয়ক উপ কমিটির সদস্য জেরিন সুলতানা কান্তা, হেলেন জাহাঙ্গীর, আদম তমিজি হক, যুবলীগ নেতা খায়রুল মজিদ, যুব মহিলা লীগ নেত্রী রেহানা ফরহাদ। শেষমেশ ঢাকা উত্তরে আতিকুলকে দলীয় মনোনয়ন দেয় আওয়ামী লীগ।