বাংলাদেশে ইউটিউবের অফিস চালু হচ্ছে অক্টোবরে

51

বিশ্বের ৬১তম দেশ হিসেবে বাংলাদেশে অফিস চালু করতে যাচ্ছে ভিডিও শেয়ারিং পোর্টাল ইউটিউব। আগামী অক্টোবরে মধ্যে এ অফিস চালু করতে পারে ইন্টারনেট ও সফটওয়্যার সেবাদানকারী বহুজাতিক কোম্পানি গুগলের এ পোর্টাল। এরই অংশ হিসেবে আগামী সপ্তাহে ইউটিউবের একটি প্রতিনিধি দল ঢাকায় আসছেন। খবরটি নিশ্চিত করেছেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার।
এ ব্যাপারে তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী বলেন, আমরা আশা করছি, মাস দুয়েকের মধ্যে বাংলাদেশে ইউটিউবের অফিস চালু হবে। ইউটিউব মনে করছে, বাংলাদেশ তার জন্য নতুন বিজনেস হাব হবে।
মন্ত্রী বলেন, আমাকে একটি মাধ্যম থেকে নিশ্চিত করা হয়েছে যে, আগামী অক্টোবরে আপনি দেশে ইউটিউবের অফিস পাচ্ছেন। ওই মাধ্যম আমাকে আরো জানিয়েছে, এটা (ইউটিউব) একটা গোল্ড মাইন, যদি ঠিকমতো পরিচর্যা করা যায়।
ইউটিউবে বাংলাদেশের কনটেন্ট কম মন্তব্য করে মন্ত্রী বলেন, টিভি চ্যানেলগুলো নাটকসহ অন্যান্য কনটেন্ট দিয়ে চলছে। এর বাইরেও কনটেন্টের প্রচুর চাহিদা রয়েছে। আমাদের ওই জায়গাটা ধরতে হবে।
ব্যবহারকারীর সংখ্যা বৃদ্ধি, ডিজিটাল বিপণনের বড় ক্ষেত্র তৈরি, বাজেট, কনটেন্ট ও চ্যানেলের সংখ্যা বৃদ্ধির কারণে বাংলাদেশকে সম্ভাবনাময় বাজার হিসেবে মনে করছে ইউটিউব। ইউটিউব অফিস চালু হলে কনটেন্ট ফিল্টারিং, প্রত্যাহার ও বিজ্ঞাপন দেয়ার মতো বিষয়গুলো সহজ হয়ে যাবে।
সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, ইউটিউবের ওই প্রতিনিধি দলে প্রতিষ্ঠানটির শীর্ষ কর্মকর্তারা থাকবেন। বাংলাদেশে এসে তারা সরকারের একাধিক মন্ত্রীসহ আরো বিভিন্ন পক্ষের সঙ্গে কথা বলবেন।