বিশ্রাম বিরাট-ধোনিদের, ত্রিদেশীয় সিরিজে রোহিতের নেতৃত্বে দল ঘোষণা

56

গত বছর থেকে টানা টুর্নামেন্ট খেলে চলেছেন টিম ইন্ডিয়ার প্রথম সারির ক্রিকেটাররা। বিশ্রামের কোনও বালাই নেই। এপ্রিলেই আবার ফ্র্যাঞ্চাইজির জার্সি গায়ে আইপিএল-এর বাইশ গজে নামবেন তাঁরা। সে কথা ভেবেই আসন্ন টি-টোয়েন্টি ত্রিদেশীয় সিরিজে ছয় ক্রিকেটারকে বিশ্রাম দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিলেন বিসিসিআইয়ের নির্বাচকরা।
আগেই খবর পাওয়া গিয়েছিল শ্রীলঙ্কায় হতে চলা ত্রিদেশীয় সিরিজে অধিনায়কের ভূমিকায় দেখা যাবে না বিরাট কোহলিকে। এদিন ১৫ জনের দল ঘোষণার পর সেই খবরেই সিলমোহর পড়ল। বিরাটের পরিবর্তে নেতৃত্বের দায়িত্বে থাকবেন রোহিত শর্মাই। শনিবার রোহিতের নেতৃত্বেই দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে টি-টোয়েন্টি সিরিজের শেষ ম্যাচ জিতেছে ভারত। আর সেই সঙ্গেই এলিট অধিনায়কদের তালিকায় ঢুকে পড়েছেন ভারতীয় ব্যাটসম্যান। ক্যাপ্টেন হিসেবে প্রথম চারটি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ জিতিয়ে নজির গড়েছেন তিনি। বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কার বিরুদ্ধেও দলকে জিতিয়ে ফের নায়ক হওয়ার হাতছানি রোহিতের সামনে। তাঁর ডেপুটির ভূমিকায় থাকবেন শিখর ধাওয়ান। ৬ মার্চ কলম্বোয় শুরু সেই টুর্নামেন্ট। শ্রীলঙ্কার স্বাধীনতার ৭০ বছর পূর্তি উপলক্ষেই এই বিশেষ টুর্নামেন্টের আয়োজন করা হয়েছে।
তবে শুধু বিরাটই নয়, মোট ছ’জন ক্রিকেটারকে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে। তালিকায় রয়েছেন মহেন্দ্র সিং ধোনি, জশপ্রীত বুমরাহ, ভুবনেশ্বর কুমার, হার্দিক পাণ্ডিয়া এবং কুলদীপ যাদব। খেলবেন দীপক হুডা, ওয়াশিংটন সুন্দর, বিজয় শঙ্কর, মহম্মদ সিরাজ, ঋষভ পন্থের মতো ক্রিকেটাররা। অর্থাৎ মূলত দ্বিতীয় দল নিয়েই শ্রীলঙ্কা উড়ে যাবেন রবি শাস্ত্রী। রিজার্ভ বেঞ্চকে ঝালিয়ে নেওয়াই হবে এই টুর্নামেন্টের লক্ষ্য। এদিন নির্বাচন কমিটির প্রধান এমএসকে প্রসাদ বলেন, “ক্রিকেটারদের ম্যাচের বোঝার কথা মাথায় রেখেই নিদাহাস ট্রফির (ত্রিদেশীয় টি-টোয়েন্টি সিরিজটির নাম) দল বেছে নিয়েছি। চোট আঘাত থেকে দূরে রাখতে প্রথম সারির ক্রিকেটারদের বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে। আর ধোনি নিজেই বিশ্রাম চেয়েছিলেন।”