চাঁদের হাট’র বৈকালিক আড্ডায় ‘গিট্টু দা’

0
37
Tuli-Art Buy Best Hosting In chif Rate In Bd

শিশু সাহিত্যিক ও সাংবাদিক মিলন রহমানের শিশু-কিশোর গল্পগ্রন্থ ‘গিট্টু দা’ নিয়ে পাঠ-প্রতিক্রিয়া ও চায়ের আড্ডা শুক্রবার সন্ধ্যায় চাঁদের হাট প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত হয়েছে। চাঁদের হাট যশোর’র আয়োজনে ‘শুক্রবারের বৈকালিক চায়ের আড্ডায় গিট্টু দা’ শিরোনামে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
অনুষ্ঠানের শুরুতে গিট্টু কিশোর ক্লাব সিরিজের গল্প ‘গিট্টু দা’র লেখক মিলন রহমানকে চাঁদের হাটের পক্ষ থেকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেয়া হয়। পরে চাঁদের হাটের উপদেষ্টা ও বাঁচতে শেখা’র নির্বাহী পরিচালক ম্যাগসেসে পুরস্কারপ্রাপ্ত আঞ্জেলা গোমেজ লেখককে উত্তরীয় পরিয়ে দেন। এরপর চাঁদের হাটের শিশুশিল্পী চাঁদ সোনামনি জয়া বই পড়ে তার অভিব্যক্তি প্রকাশ করে।
মূল আলোচনা পর্বে কবি ও সাংবাদিক ফখরে আলম গল্পগ্রন্থ সম্বন্ধে বলেন, ‘আমাদের সমাজে গিট্টু দা’র খুবই প্রয়োজন। লেখক তার প্রতিটি গল্পে শিশু-কিশোরদেরকে সামাজিক কাজ করতে উৎসাহিত করেছেন। এছাড়া নানাবিধ সামাজিক সমস্যা ও তার সমাধানে করণীয় প্রসঙ্গে পরিকল্পনা এঁকেছেন।’ ‘খুব সহজ ভাষায় চমৎকার করে তুলে ধরা গল্পের প্লটগুলো শিশু-কিশোরদের মন ছুঁয়ে যাবে’ বলে তিনি মন্তব্য করেন।
চাঁদেরহাট যশোরের সাবেক সাধারণ সম্পাদক ফারাজী আহমেদ সাঈদ বুলবুল বইয়ের ‘গিট্টু কিশোর ক্লাব’ গল্প বিশ্লেষণ করতে গিয়ে বলেন, ‘লেখক মিলন রহমান তার গল্পের মাধ্যমে শিশু-কিশোরদেরকে সামাজিকভাবে যেমন বেড়ে উঠতে শিখিয়েছেন, তেমনই দলবদ্ধ কার্যাবলীতে মতামতের প্রতি প্রাধান্য কীভাবে দেয়া উচিৎ তা মজার সব ঘটনার মাধ্যমে তুলে ধরেছেন।’
এ সময় শিশুসাহিত্যিক মিলন রহমানের গল্পগ্রন্থের পরিবেশক ‘চমনপ্রকাশ’র নির্বাহী সম্পাদক, কবি সৈয়দ আহসান কবীর বইটির বিভিন্ন গল্পের উদ্ধৃতি তুলে ধরে ব্যাখ্যা করেন। পরে শিশুসাহিত্যিক মিলন রহমানের ছোট দুই বোন তানিয়া আফরিন রুমা, সোনিয়া আফরিন সোমা ও লেখকপতœী ইয়াসমীন আক্তার লাবনী তাদের অভিব্যক্তি প্রকাশ করেন। আড্ডায় মিলন রহমান এমন আয়োজন এবং তার গল্পগ্রন্থ পড়ে আলোচনা করার জন্য চাঁদের হাটসহ আলোচক, পাঠক, অভিভাবক ও চাঁদমনিদের প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানান।
আড্ডায় উলাসী সৃজনী সংঘের নির্বাহী পরিচালক খন্দকার আজিজুল হক মনি, চাঁদের হাটের সাধারণ সম্পাদক এস এম আরিফ, যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক তুরানী চৌধুরী প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন মুসলিমা আক্তার মৌ। পরে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে আড্ডা শেষ হয়।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here