বোরখা পরে খাস মক্কায় বসে বোর্ড গেমে মত্ত রমণীরা, তুঙ্গে বিতর্ক

78

মক্কায় যাওয়া যে কোনও ইসলাম ধর্মাবলম্বী মানুষের স্বপ্ন। যিনি যেতে পারেন, তিনি নিজেকে ভাগ্যবান মনে করেন। অনেকে আবার অর্থাভাবে যেতে পারেন না বলে আক্ষেপ করেন। সেই মক্কায় বসে বোর্ড গেমে মত্ত হলেন জনা চারেক মহিলা। আগাপাশতলা বোরখায় ঢাকা রমণীরা মক্কায় বসে কেন খেলা করছেন? এই প্রশ্নেই আপাতত ঘোর বিতর্ক নেটদুনিয়ায়।
মহিলাদের পরিচয় অবশ্য এখনও জানা যায়নি। জানা যাচ্ছে, ‘সিকোয়ন্স’ নামে এক ধরনের খেলায় মগ্ন ছিলেন তাঁরা। তখনই কেউ তাঁদের ছবিটি তোলেন। সেটি সোশ্যাল মিডিয়ায় ছড়িয়েও পড়ে। তারপরই শোরগোল পড়ে, শুরু হয় বিতর্ক। মক্কার মতো পবিত্র জায়গায় বসে কেন রমণীরা খেলায় মত্ত, সে প্রশ্ন উঠতে থাকে। নজরে আসে কর্তৃপক্ষের। বিবৃতি জারি করে জানানো হয়, আচমকাই মসজিদ চত্বরে কয়েকজন মহিলাকে বসে খেলতে দেখা যায়। কেন তাঁরা খেলছিলেন তা অবশ্য জানা নেই। তবে এরপরই মহিলা নিরাপত্তারক্ষীদের পাঠানো হয়। তাঁরা ওই মহিলাদের বলেন যে, মক্কা পবিত্র জায়গা। বহু মানুষের আবেগ ও শ্রদ্ধা জড়িয়ে আছে। এখানে বসে তাঁরা যেন না খেলেন। ভুল বুঝতে পেরে সঙ্গে সঙ্গেই মহিলারা ওই স্থান ছেড়ে চলে যান।
তবে এখানেই বিতর্কে ইতি পড়েনি। সোশ্যাল মিডিয়ায় এই ছবি নিয়ে তুমুল বিতর্ক শুরু হয়। কেউ কেউ বলছেন, মহিলারা যা করেছেন তা মক্কার প্রতি অসম্মান প্রদর্শন। অন্য অনেকে বলছেন, মহিলাদের কোনও খারাপ উদ্দেশ্য তো ছিল না। সামান্য খেলার জন্য তাঁদের কাঠগড়ায় তোলা উচিত নয়। তবে এ ধরনের ঘটনা নতুন নয়। ২০১৫ সালেও আরবের এক মসজিদের মধ্যে কয়েকজনকে তাস খেলতে দেখা গিয়েছিল। গ্রেপ্তার করা হয়েছিল তাদের।