এবার গরম দুধ পানেই তোফা ঘুম! কী বলছেন বিশেষজ্ঞরা?

70

কয়েক বছরে আমাদের জীবনে অনেক পরিবর্তন এসেছে। কর্পোরেট লাইফে ঢুকে পড়ার পর অনেকেই পেয়েছেন জীবনের অন্যতম দুটো ‘উপহার’- অবসাদ এবং নিদ্রাহীনতা। অনেকেই আছেন যাঁরা রাতে ঘুম না হওয়ার সমস্যায় ভোগেন। আর এর প্রভাব পড়ে তাঁদের কর্মক্ষেত্রে। চিকিত্‍সকরা বলছেন, খাওয়া দাওয়ার অভ্যাসে কিছু পরিবর্তন আনলে অনেটাই কাটিয়ে ফেলা যাবে এই সমস্যা।

গবেষণায় দেখা গিয়েছে, যাঁদের ক্যালসিয়ামের ঘাটতি রয়েছে, তাঁদের অনেকেরই ঘুমের সমস্যা হয়। তাই রাতে ঘুমানোর আগে এক গ্লাস দুধ কিংবা এক কাপ দই খেয়ে ঘুমোতে যান, দেখবেন এতে উপকার পাবেন। আর শুধু তাই নয়, দুধে থাকে ক্যালসিয়াম। যা মস্তিষ্কে ট্রিপটোফ্যান তৈরি করে। আর এই ট্রিপটোফ্যানই আপানকে রাতে গভীরভাবে ঘুমোতে সাহায্য করবে।

আর সেই দুধ যদি গরম হয় তবে তো কথায় নেই। কারণ গরম দুধ মাংসপেশিকে শিথিল করে। ফলে ঘুম তাড়াতাড়ি আসে। এছাড়াও দুধের মধ্যে রয়েছে অন্য বেশ কয়েকটি অজানা উপকারিতা। আসুন জেনে নেওয়া যাক সেগুলি কী কী –
১. ক্লান্তি দূর করে: কর্মব্যস্ততার পর ক্লান্তি দূর করতে এক গ্লাস গরম দুধ খুবই উপকারী। গরম দুধ ক্লান্ত পেশি সতেজ করতে সাহায্য করে। এছাড়া, দুধ খেলে শরীরে মেলটনিন ও ট্রাইপটোফ্যান হরমোন নিঃসৃত হয়, এই হরমোনগুলো ঘুম ভালো হতে সাহায্য করে।

২. হৃদপিণ্ড ও রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ: দুধে রয়েছে পটাশিয়াম যা হৃদপিণ্ডের পেশির সুস্থতা বজায় রাখে। তাছাড়া এর খনিজ উপাদান হৃদপিণ্ড সতেজ রেখে রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণও করতে পারে।

৩. চুলের পুষ্টি: দুধে আছে প্রচুর ফ্যাটি অ্যাসিড এবং অ্যামাইনো অ্যাসিড, যা চুলের জন্য খুব উপকারী। তাছাড়া দুধের ক্যালসিয়াম দাঁত ও হাড়ের জন্যও জরুরি।

তবে, অপানার যদি হাইপার অ্যাসিডিটি থেকে থাকে তবে বিশেষজ্ঞরা বলছেন, আপনার দুধ এড়িয়ে চলাই ভাল।