ফোর জি যুগে বাংলাদেশ, লাইসেন্স পেল চার অপারেটর

73

বহুপ্রতিক্ষিত ফোরজি সোমবার সন্ধ্যা থেকেই সারাদেশে চালু হয়েছে। অপারেটররা লাইসেন্স পাওয়ার পরই তিন বেসরকারী মোবাইল অপারেটর ফোর জি সেবা চালু করেছে। তবে লাইসেন্স পাওয়া রাষ্ট্রায়ত্ত মোবাইল ফোন অপারেটর টেলিটক এ সেবা চালু করতে পারেনি। টেলিটক কবেনাগাদ ফোর জি সেবা চালু করতে পারবে তার কোন দিন তারিখ বলতে পারেনি প্রতিষ্ঠানটির এমডি।
সোমবার সন্ধ্যায় রাজধানীর ঢাকা ক্লাবে টেলিটক, গ্রামীণফোন, রবি এবং বাংলালিংকের কাছে আনুষ্ঠানিকভাবে ফোরজি সেবার লাইসেন্স হস্তান্তর করে টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন বিটিআরসি। টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী গোলাম কুদ্দুস, গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মাইকেল ফোলি, রবি আজিয়াটার ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা মাহতাব উদ্দিন আহমেদ ও বাংলালিংকের সিইও এরিক অস ফোর জি লাইসেন্স গ্রহণ করেন। লাইসেন্স হাতে পাওয়ার পরপরই গ্রামীণফোন, রবি ও বাংলালিংক তাদের ফোর জি সেবা চালু করে। অনুষ্ঠানে বিটিআরসির চেয়ার‌্যান শাহজাহান মাহমুদ অপারেটদের শীর্ষ কর্মকর্তাদের হাতে ফোর জি লাইসেন্স তুলে দেন। এ সময় ডাক টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মšúী মোস্তাফা জব্বার, টেলিযোগাযোগ সচিব শ্যাম সুন্দর সিকদারসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার দেশের সবাই যাতে ফোর জির মান সম্মত সেবা পায় সে বিষয়ে লক্ষ্য রাখতে অপারেটরদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। অপারেটররা মানসম্মত সেবা দিচ্ছে কিনা সেদিকে সরকার নজর রাখবে। ফোর জি সেবা চালুর পর ডিজিটাল বাংলাদেশ পথে দেশ আরও এক ধাপ অগ্রসর হলো।

বিটিআরসির চেয়ারম্যান শাহজাহান মাহমুদ বলেন, পাশর্^বর্তী দেশগুলোতে অনেক আগেই ফোরজি সেবা চালু হয়েছে। দেরিতে হলেও বাংলাদেশে এই সেবা চালু হলো। এর ফলে গ্রাহকেরা আরও দ্রুতগতির ইন্টারনেট সুবিধা ভোগ করতে পারবে। ফলে ডিজিটাল বাংলাদেশ গঠনে দেশ আরও এগিয়ে যাবে।

সূত্র জানিয়েছে, গতকালই রবি দেশের সাত বিভাগীয় শহরে. গ্রামীণফোন ঢাকা ও চট্টগ্রামে এবং বাংলালিংক ঢাকা চট্টগ্রাম ও খুলনায় ফোর জি সেবা চালু করেছে। টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক কাজী গোলাম কুদ্দুস জানিয়েছেন বলেন, তারা দ্রুত ফোর জি সেবা চালু করবেন। ফোর জি লাইসেন্স নিতে গত জানুয়ারিতে আবেদন করে গ্রামীণফোন, রবি, বাংলালিংক, টেলিটক ও বন্ধ হয়ে যাওয়া অপারেটর সিটিসেল। ফোরজি চালু সামনে রেখে গত ১৩ ফেব্রুয়ারি তিনটি ব্যান্ডের (৯০০, ১৮০০ ও ২১০০ মেগাহার্টজ) অব্যবহƒত বেতার তরঙ্গ নিলাম সম্পন্ন করে বিটিআরসি। এতে গ্রামীণ ফোন ও বাংললিংক মিলে ১৮০০ ও ২১০০ মেগাহার্টজ ব্যান্ডের ১৫ দশমিক ৬ মেগাহার্টজ বেতার তরঙ্গ কেনে যার মোট মূল্য ৫ হাজার ২৬৮ কোটি ৫১ লাখ টাকা। রবি ও টেলিটক ওই নিলামে অংশ নেয়নি। এই অপারেটর দুটি তাদের হাতে থাকা তরঙ্গ দিয়েই ফোর জি দিবে। সিটিসেল ফোর জি তরঙ্গ নিলামে অংশ নেয়নি। ফোর জি তরঙ্গের নিলাম এবং প্রযুক্তি নিরপেক্ষতার সুবিধা বিক্রি করে ভ্যাটসহ পাঁচ হাজার ২৮৯ কোটি টাকা আয় করেছে সরকার।