Tuli-Art Buy Best Hosting In chif Rate In Bd

মুসলিমদের ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত করেছে প্রিয়া প্রকাশ ভারিয়েরের গান। সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে এবার ছবির পরিচালককে নোটিস পাঠাল পুলিশ। হায়দরাবাদের ফলকনুমা পুলিশের তরফে পাঠানো হয়েছে নোটিস। একটি কপি ডাক মারফৎ পৌঁছবে পরিচালক ওমর লুলুর কাছে। অন্যটি তাঁকে হাতেই ধরানো হবে। সেজন্য ফলকনুমা পুলিশের একটি দল কেরলের উদ্দেশে রওনা হয়ে গিয়েছে। ওমর লুলুর ‘ওদু আদার লাভ’ ছবিতে অভিনয় করছেন প্রিয়া। সেখানেই রয়েছে ‘মানকিয়া মালারাই পুভি’ গানটি। ইতিমধ্যেই গানের তালে জনপ্রিয় হয়েছে দক্ষিণী অভিনেত্রী প্রিয়ার আঁখি পল্লবের ইশারা। নেটদুনিয়া কাঁপিয়ে সেই ভিডিও এখন ইউটিউবে ভাইরাল।
ইন্টারনেটে সেনসেশন তৈরি করা প্রিয়ার আখির নাচনে এখন মাতোয়ার আট থেকে আশি। তবে গানের কথা নিয়ে অভিযোগ থাকলেও প্রিয়ার চাহনি নিয়ে কোনওরকম অভিযোগ কিন্তু ওঠেনি। তাই লক্ষ লক্ষ হৃদয় জিতেও ‘পদ্মাবতে’র পথ ধরেই বিতর্কের চূড়ায় উঠছে লুলুর ‘ওদু আদার লাভ’। যদিও বিতর্কে পাত্তা দিতে রাজি নন পরিচালক লুলু। তাঁর স্পষ্ট দাবি, ওই গানে কোনও ভাবেই মুসলিম ভাবাবেগে আঘাত দেওয়া হয়নি। আদ্যপান্ত প্রেমের অনুষঙ্গে লেখা গানের কথা। তাছাড়া ১৯৭০ সাল থেকেই এই গানের জনপ্রিয়াত রয়েছে কেরলে। তাই কোনওভাবেই ইউটিউবে থেকে গানটি সরিয়ে নেওয়া হচ্ছে না।

লুলুর এহেন ব্যাখ্যার পরে দুরকমের পন্থা নিয়েছে ফলকনুমা পুলিশ। ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৬০ ধারায় ফৌজদারি মামালা রুজু হয়েছে লুলুর বিরুদ্ধে। নোটিসে উল্লেখ করা হয়েছে, ১৫ দিনের মধ্যে সংশ্লিষ্ট গান কেন ছবিতে থাকবে তার ব্যাখ্যা দেবেন পরিচালক ওমর লুলু। সেই ব্যাখ্যা যদি কোর্টের কাছে সন্তোষজনক না হয় তাহলে ভারতীয় দণ্ডবিধির ৪১ ধারার আওতায় নতুন মামলা রুজু হবে ওমরের বিরুদ্ধে। এখানে অভিযুক্ত হিসেবেই মানা হবে লুলুকে। তবে এই আইনি প্রক্রিয়া শুরুর আগে ১৬০ ধারার ফৌজদারি মামলাটি বন্ধ করে দিতে হবে। এদিকে ধর্মীয় ভাবাবেগে আঘাত দেওয়ার অভিযোগে ভারতীয় দণ্ডবিধির ১৯৫ ধারার আওতায় আরও একটি মামালা রুজু হয়েছে লুলুর বিরদ্ধে। সুনির্দিষ্ট অভিযোগের ভিত্তিতে মামলাটি করেছে ফলকনুমা পুলিশ।