পৌর নির্বাচনে যারা জয়ী হলেন

115

নড়াইল কণ্ঠ ডেস্ক : দেশের ২৩৪টি পৌরসভায় বুধবার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এরমধ্যে নরসিংদীর মাধবদী পৌরসভার নির্বাচন স্থগিত করা হয়েছে। এবারের নির্বাচনে রাজনৈতিক দলের প্রতীকে মেয়রপ্রার্থীরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। এর পাশাপাশি রয়েছে কাউন্সিলর এবং সংরক্ষিত মহিলা কাউন্সিলর প্রার্থীরা।

সারাদেশ থেকে নির্বাচনে জয়-পরাজয়ের সংবাদ :
নড়াইল : নড়াইল পৌর নির্বাচনে ৪হাজার ৬শত ৭২টি ভোট বেশি পেয়ে বেসরকারীভাবে জয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের মেয়রপ্রার্থী মো: জাহাঙ্গাীর হোসেন বিশ্বাস। তিনি নৌকা প্রতীকে ভোট পেয়েছেন ১১হাজার ৪৩টি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি’র প্রার্থী জুলফিকার আলী পেয়েছেন ৬হাজার ৩শত ৭১টি ভোট।

কালিয়া : নড়াইলের কালিয়া পৌর নির্বাচনে ২হাজার ৫৮টি ভোট বেশি পেয়ে বেসরকারীভাবে জয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী স্বতন্ত্র মেয়রপ্রার্থী ফকির লিটন। তিনি চামুচ মার্কায় ভোট পেয়েছেন ৩হাজার ৮শত ১২টি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের প্রার্থী ওয়াহিদুজ্জামান হীরা পেয়েছেন ১হাজার ৭শত ৫৪টি ভোট।

ভবানীগঞ্জ : রাজশাহীর ভবানীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে ৯৩৩ ভোট বেশি পেয়ে বেসরকারিভাবে জয়ী হয়েছেন আওয়ামী লীগের মেয়রপ্রার্থী আব্দুল মালেক। তিনি নৌকা প্রতীকে ভোট পেয়েছেন ৫ হাজার ২৫৪টি। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক পেয়েছেন ৪ হাজার ৩২১টি ভোট।

দৌলত খান : ভোলার দৌলতখান পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী জাকির হোসেন বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। দৌলতখান উপজেলার রিটার্নিং অফিসার মুস্তাফিজুর রহমান এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।
ভোলার দৌলতখান পৌরসভার মোট ৯ কেন্দ্রের প্রাপ্ত ফলাফলে দেখা গেছে, আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী জাকির হোসেন পেয়েছেন ৬ হাজার ৯৭৪ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মেয়র প্রার্থী আনোয়ার হোসেন পেয়েছেন ৬৭৯ ভোট।

করিমগঞ্জ : কিশোরগঞ্জের করিমগঞ্জ পৌরসভায় স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. আবদুল কাইয়ুম বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হন।
তিনি জগ প্রতীকে ১০ হাজার ১৮৬ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী মো. কামরুল ইসলাম চৌধুরী মামুন নৌকা প্রতীকে ৪ হাজার ৯১৬ ভোট পেয়েছেন।

পাইকগাছা : খুলনার পাইকগাছা পৌরসভায় আওয়ামী লীগ প্রার্থী সেলিম জাহাঙ্গীর মেয়র পদে নৌকা প্রতীক নিয়ে ৬ হাজার ৩৮৮ ভোট পেয়ে জয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম বিএনপি প্রার্থী অ্যাডভোকেট আব্দুস সাত্তার ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে ২ হাজার ৬০৩ ভোট পেয়েছেন।
এ পৌরসভায় স্বতন্ত্র প্রার্থী জামায়াতে ইসলামী নেতা অ্যাডভোকেট আব্দুল মজিদ নারিকেল গাছ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৫৯৪ ভোট।

চালনা : খুলনার চালনা পৌরসভায় আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী সনৎ কুমার বিশ্বাস মেয়র পদে নৌকা প্রতীক নিয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি ৪ হাজার ৯৩৫ ভোট পেয়েছেন।
তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী ড. অচিন্ত্য কুমার মন্ডল জগ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ২ হাজার ৫১৯ ভোট। এ ছাড়া বিএনপি প্রার্থী শেখ আব্দুল মান্নান ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১ হাজার ১৮ ভোট।

কানাইঘাট : সিলেটের কানাইঘাট পৌরসভায় বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী নিজাম উদ্দিন আল মিজান। নারকেল গাছ প্রতীক নিয়ে তিনি পেয়েছেন ৩৩৭৮ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের লুৎফুর রহমান পেয়েছেন ২৮৯৭ ভোট।

কালাই : জয়পুরহাটের কালাই পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হালিমুল আলম জন ৬ হাজার ৮৪৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির সাজ্জাদুর রহমান সোহেল পেয়েছেন ২ হাজার ১৬১ ভোট ।

আক্কেলপুর : জয়পুরহাটের আক্কেলপুর পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী গোলাম মাহফুজার রহমান অবসর নৌকা প্রতীক নিয়ে ৬ হাজার ৬০০ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী রেজাউল করিম পান মার্কা প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩ হাজার ৮৫৫ ভোট। তিনি বিএনপি থেকে প্রার্থী হতে চেয়েও পারেননি।

দাগনভুঞা : ফেনীর দাগনভূঞা পৌরসভায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী ওমর ফারুক খান বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি ১১ হাজার ৫৮১ ভোট পেয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী কাজী সাইফুর রহমান স্বপন পেয়েছেন ২৩৪৬ ভোট।
এর আগে ফেনীর ফেনী সদর ও পরশুরাম পৌরসভায় আওয়ামী লীগ মনোনীত দুই মেয়র প্রার্থী যথাক্রমে হাজী আলাউদ্দিন ও নিজাম উদ্দিন আহমেদ চৌধুরী সাজেল বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।
নলছিটি : ঝালকাঠির নলছিটি পৌরসভায় মেয়র পদে আওয়ামী লীগের প্রার্থী তছলিম উদ্দিন চৌধুরী ১৩০৪২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি প্রার্থী মজিবুর রহমান পেয়েছেন ৬৩৫ ভোট ।
এদিকে, কাউন্সিলর পদে ১নং ওয়ার্ডে পলাশ তালুকদার, ২নং ওয়ার্ডে লুৎফুর কবির প্রিন্স, ৩ নং ওয়ার্ডে তোফায়েল হোসেন, ৪নং ওয়ার্ডে আব্দুল কুদ্দুস মোল্লা, ৫নং ওয়ার্ডে আলঙ্গীর হোসেন আলো, ৬নং ওয়ার্ডে আব্দুল সালাম, ৭নং ওয়ার্ডে নুরুল ইসলাম স্বপন, ৮নং ওয়ার্ডে মামুন হোসেন লাভলু, ৯নং ওয়ার্ডে খান জামাল উদ্দিন এবং সংরক্ষিত আসনে শিউলি বেগম, ফিরোজা বেগম ও মিনারা বেগম বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

মাগুরা : মাগুরার একমাত্র পৌর নির্বাচনে ৩২টি কেন্দ্রের ভোট গণনা শেষে ২৭ হাজার ৯৫০ ভোট পেয়ে আওয়ামী লীগের খুরশিদ হায়দার টুটুল বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ধানের শীষ প্রতীকে বিএনপির ইকবাল আকতার খান কাফু পেয়েছেন ১৫ হাজার ৪৯৬ ভোট।

বানারীপাড়া : বরিশালের বানারীপাড়া পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট সুভাষ চন্দ্র শীল ৫ হাজার ৬৪৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন । তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির গোলাম মাহমুদ মাহবুব মাস্টার পেয়েছেন ৪০৩ ভোট। এছাড়া ইসলামী আন্দোলনের জালিস মাহমুদ মৃধা পেয়েছেন ১৩৭ ভোট।

মুলাদী : বরিশালের মুলাদী পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মো. শফিকুজ্জামান রুবেল ৯ হাজার ৩৫৮ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির আসাদ মাহমুদ পেয়েছেন ৫৯৬ ভোট। এছাড়া হাতুড়ি প্রতীক নিয়ে সেলিম চৌকিদার ৭৪ ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মাওলানা মঞ্জুরুল ইসলাম পেয়েছেন ৩৪০ ভোট।

গাংনী : মেহেরপুরের গাংনী পৌরসভায় স্বতন্ত্র প্রার্থী আশরাফুল ইসলাম ভেন্ডার জগ প্রতীকে ৭৩৮০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের আহম্মেদ আলী পেয়েছেন ৫৪১৬ ভোট। বিএনপির প্রার্থী ইনসারুল হক ইন্সু ৭৯৫ ভোট, জাতীয় পার্টির (এরশাদ) এসএম মুর্তজা আলম ( লাঙ্গল ) ৪৯ ভোট ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী হুজ্জাতুল ইসলাম ফয়সল ( হাতপাখা ) ২২৭ ভোট পেয়েছেন।

মানিকগঞ্জ : মানিকগঞ্জ পৌরসভায় স্বতন্ত্র প্রার্থী গাজী কামরুল হুদা সেলিম নারিকেল গাছ প্রতীক নিয়ে বেসরকারিভাবে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি পেয়েছেন ১৩ হাজার ৪৪৭ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির নাসির উদ্দিন যাদু পেয়েছেন ১১ হাজার ৫৫৭। আওয়ামী লীগের প্রার্থী সাবেক মেয়র রমজান আলী পেয়েছেন ৯ হাজার ৮৮৪ ভোট।

শিবচর : মাদারীপুরের শিবচর পৌরসভায় ১০ হাজার ১৩৭ ভোট পেয়ে আওয়ামী লীগের মো. আওলাদ হোসেন খান বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. তোফাজ্জেল হোসেন খান তোতা নারিকেল গাছ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৪৯১ ভোট।
এছাড়া সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১নং ওয়ার্ডে আক্তার হোসেন খান, ২নং ওয়ার্ডে শাজাহান মোল্যা, ৩নং ওয়ার্ডে শাকিল হোসেন খান, ৪নং ওয়ার্ডে হানিফ খালাসী, ৫নং ওয়ার্ডে বেলায়েত ইবনে ওয়াহেদ, ৬নং ওয়ার্ডে রাজা মিয়া মোল্লা, ৭নং নওয়াব বেপারী, ৮নং ওয়ার্ডে আজিজুল হক, ৯নং ওয়ার্ডে আবদুল কাদের খান মিলু বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।
এছাড়া ১,২,৩ সংরক্ষিত মহিলা আসনে মলি রায়, ৪,৫,৬ সংরক্ষিত আসনে আজিমন নেছা, ৭,৮,৯ সংরক্ষিত আসনে জাহানারা বেগম বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।

রাণীশংকৈল : ঠাকুরগাঁওয়ের রাণীশংকৈল পৌরসভায় আওয়ামী লীগের আলমগীর সরকার ৪ হাজার ৮৮১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জামায়াত নেতা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী জগ মার্কায় মোকাররম হোসেন ৩ হাজার ৪৯১ ভোট পেয়েছেন।
পীরগঞ্জ : ঠাকুরগাঁওয়ের পীরগঞ্জ পৌরসভার আওয়ামী লীগের কসিরুল আলম ৫ হাজার ৭০৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির রাজিউর রহমান রাজু পেয়েছেন ৫ হাজার ১৩৬ ভোট।

কিশোরগঞ্জ : কিশোরগঞ্জ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী পারভেজ মিয়া জয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী ছিলেন বিএনপির মাজহারুল ইসলাম।

হোসেনপুর : কিশোরগঞ্জের হোসেনপুর পৌরসভায় আওয়ামী লীগের আব্দুল কাইয়ুম খোকন ৪ হাজার ৮৭২ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ নেতা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. সৈয়দ হোসেন পেয়েছেন ৪ হাজার ৭২৭ ভোট।

কটিয়াদী : কিশোরগঞ্জের কটিয়াদী পৌরসভায় আওয়ামী লীগের শওকত উসমান শুক্কুর আলী নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি পেয়েছেন ১২ হাজার ৯১৮ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির তোফাজ্জল হোসেন খান দিলীপ পেয়েছেন ৭ হাজার ৩৫৫ ভোট।

রাজিতপুর : কিশোরগঞ্জের বাজিতপুর পৌরসভায় আওয়ামী লীগের আনোয়ার হোসেন আশরাফ ১০ হাজার ১৬৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছে। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির এহেসান কুফিয়া পেয়েছেন ৪ হাজার ১৬২ ভোট।

কুলিয়ারচর : কিশোরগঞ্জের কুলিয়ারচর পৌরসভায় আওয়ামী লীগের আবুল হাসান কাজল নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি পেয়েছেন ৯ হাজার ৩৪৪ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির হাজী শাফী উদ্দিন পেয়েছেন ৭ হাজার ৫৮৫ ভোট।

ভৈরব : কিশোরগঞ্জের ভৈরব পৌরসভায় আওয়ামী লীগের ফখরুল আলম আক্কাছ ৩০ হাজার ৫৯৩ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির হাজী মো. শাহীন পেয়েছেন ১৯ হাজার ৯৫৩ ভোট।

জকিগঞ্জ : সিলেটের জকিগঞ্জ পৌরসভায় বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন নৌকা প্রতীকের প্রার্থী খলিল উদ্দিন। তিনি পেয়েছেন ১৫০৫ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আঞ্জুমানে আল ইসলাহ সমর্থিত প্রার্থী হিফজুর রহমান মোবাইল ফোন প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ১৩৭১ ভোট।

বদরগঞ্জ: রংপুরের বদরগঞ্জ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের উত্তম কুমার সাহা ৬ হাজার ৯৯২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী আজিজুল হক নারিকেল গাছ প্রতীক নিয়ে ৫ হাজার ৯৯৭ ভোট পেয়েছেন।

বোয়ালমারী : ফরিদপুরের বোয়ালমারী পৌরসভার নির্বাচনে ৭ হাজার ৫৯০ ভোট পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. মোজাফফর হোসেন বাবলু (জগ) বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির আব্দুস শুকুর শেখ পেয়েছেন ৫ হাজার ৭৭৯ ভোট।

নগরকান্দা : ফরিদপুরের নগরকান্দা পৌরসভা নির্বাচনে ৪ হাজার ১৯৭ ভোট পেয়ে আওয়ামী লীগের মো. রায়হান উদ্দিন মিয়া বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মো. সাইফুর রহমান মুকুল পেয়েছেন ১ হাজার ২৩৩ ভোট।

বীরগঞ্জ : দিনাজপুরের বীরগঞ্জ পৌরসভায় স্বতন্ত্র প্রার্থী (জামায়াত নেতা ) মাওলানা আবু হানিফ বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি মোট ভোট পেয়েছেন ৪ হাজার ৫০০ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মো. মোশারফ হোসেন বাবুল পেয়েছেন ৩ হাজার ৮৪৮ ভোট।

ফুলবাড়ী : দিনাজপুরের ফুলবাড়ী পৌরসভায় স্বতন্ত্র প্রাথী গোলাম মুর্তুজা সরকার মানিক (নারকেল গাছ) বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন । তিনি মোট ভোট পেয়েছেন ৬ হাজার ৪০৩ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মো. শাহজাহান আলী সরকার পুতু পেয়েছেন ৪ হাজার ৭৯১ ভোট ।

বিরামপুর : বিরামপুর পৌরসভায় স্বতন্ত্র প্রার্থী মো. লিয়াকত আলী টুটুল নারকেল গাছ প্রতীক নিয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন।
মৌলভীবাজার সদর : মৌলভীবাজার সদর পৌরসভায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী ফজলুর রহমান ১২ হাজার ৩৯৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী অলিউর রহমান পেয়েছেন ৭ হাজার ২৪৮ ভোট।

কুলাউড়া : মৌলভীবাজারের কুলাউড়া পৌরসভায় আওয়ামী লীগ নেতা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী শফিউল আলম ইউনূস ৪ হাজার ৩৩১ ভোট পেয়ে মেয়র পদে জয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির কামাল আহমদ জুনেদ পেয়েছেন ৪ হাজার ১৭৪ ভোট।

কমলগঞ্জ : মৌলভীবাজারের কমলগঞ্জ পৌরসভায় আওয়ামী লীগ প্রার্থী জুয়েল আহমদ ৩ হাজার ৯৯০ ভোট পেয়ে মেয়র পদে জয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি নেতা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী জাকারিয়া হাবিব বিপ্লব ২ হাজার ৮০৪ ভোট পেয়েছেন।

বড়লেখা : মৌলভীবাজার জেলার বড়লেখা পৌরসভায় আওয়ামী লীগ প্রার্থী কামরান চৌধুরী ৪ হাজার ৪৭ ভোট পেয়ে মেয়র পদে জয়ী হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জামায়াত নেতা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী খিজির আহমদ পেয়েছেন ২ হাজার ৫৭৭ ভোট।

গৌরনদী : বরিশালের গৌরনদী পৌরসভায় বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী মো. হারিছুর রহমান। তিনি পেয়েছেন ১৯ হাজার ৯৫৯ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী পেয়েছেন ৭৭৬ ভোট।

গোলাপগঞ্জ : সিলেটের গোলাপগঞ্জ পৌরসভায় বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী সিরাজুল জব্বার চৌধুরী। মোবাইল ফোন প্রতীক নিয়ে তিনি পেয়েছেন ৪৪৪৫ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী আমিনুর রহমান লিপন নারকেল গাছ প্রতীক নিয়ে পেয়েছেন ৩২০৫ ভোট।

পঞ্চগড়: পঞ্চগড় পৌরসভায় বেসরকারিভাবে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন বিএনপির মো. তৌহিদুল ইসলাম। তিনি পেয়েছেন ১৩ হাজার ৮৬৮ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের জাকিয়া খাতুন পেয়েছেন ৬ হাজার ৭৯৮ ভোট। এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থী (জামায়াত নেতা) মাওলানা আব্দুল খালেক নারিকেল গাছ প্রতীকে পেয়েছেন ১ হাজার ৮৯২ ভোট এবং জাসদের প্রার্থী আব্দুল মজিদ বাবুল মশাল প্রতীকে পেয়েছেন ৪৯৭ ভোট।

পাটগ্রাম: লালমনিরহাটের পাটগ্রাম পৌরসভায় মেয়র পদে আওয়ামী লীগের শমসের আলী ৭ হাজার ১৪৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির একে মোস্তফা সালাউজ্জামান পেয়েছেন ৪ হাজার ১২৪ ভোট। এছাড়া স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী জগ প্রতীকে ওয়াজেদুল ইসলাম শাহীন ৩ হাজার ৮৯৪ ভোট এবং জাতীয় পার্টির লাঙ্গল প্রতীকে আব্দুল হামিদ বেঞ্জু ১৯৪ ভোট পেয়েছেন।

জামালপুর সদর : জামালপুর সদর পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী মির্জা সাখাওয়াতুল আলম মনি ৫৩ হাজার ৯১১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মেয়র প্রার্থী অ্যাডভোকেট শাহ্ মো. ওয়ারেছ আলী মামুন পেয়েছেন ১২ হাজার ৬৬০ভোট।

মেলান্দহ : জামালপুরের মেলান্দহ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী শফিক জাহেদী রবিন ৯ হাজার ১৪৫ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মেয়র প্রার্থী হাজী দিদার পাশা পেয়েছেন ৭ হাজার ৪১৮ ভোট।

ইসলামপুর : জামালপুরের ইসলামপুর পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী আব্দুল কাদের শেখ ৯ হাজার ৯২১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। অপরদিকে তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মেয়র প্রার্থী ৭ হাজার ৫৪ ভোট পেয়েছেন।

দেওয়ানগঞ্জ : জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী শাহনেওয়াজ শাহানশাহ ১৬ হাজার ৪২১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়মী লীগের বিদ্রোহী মেয়র প্রার্থী শেখ নূরুন্নবী অপু ২ হাজার ১৪৯ ভোট পেয়েছেন।

সরিষাবাড়ী : জামালপুরের সরিষাবাড়ী পৌরসভায় আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী রোকনুজ্জামান রোকন ১৮ হাজার ২৪৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মেয়র প্রার্থী ফয়জুল কবীর তালুকদার শাহীন পেয়েছেন ৭ হাজার ৬২২ ভোট।

মাদারগঞ্জ : জামালপুরের মাদারগঞ্জ পৌরসভায় মনোনয়নপত্র প্রত্যাহারের শেষ দিনে বিএনপির মেয়র প্রার্থী মোশারফ হোসেন তালুকদার লেমন তার মনোনয়নপত্র প্রত্যাহার করে নেয়ায় একক প্রার্থী হিসেবে আওয়ামী লীগের মেয়র প্রার্থী মির্জা গোলাম কিবরিয়া কবির বেসরকারিভাবে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বীতায় নির্বাচিত হয়েছেন। তিনি বর্তমান বস্ত্র ও পাট প্রতিমন্ত্রী মির্জা আজমের ছোট ভাই।

শেরপুর সদর : শেরপুর সদর পৌরসভায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী গোলাম মোহাম্মদ কিবরিয়া লিটন ২৩ হাজার ৪০৭ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী আব্দুর রাজ্জাক আশীষ পেয়েছেন ২৩ হাজার ১৪০ ভোট।

নকলা : শেরপুরের নকলা পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী মো. হাফিজুর রহমান লিটন ৭ হাজার ৭০৪ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগ নেতা ও স্বতন্ত্র প্রার্থী নূরে আলম সিদ্দিকী উৎপল পেয়েছেন ৫ হাজার ১২৩ ভোট।

নালিতাবাড়ী : শেরপুরের নালিতাবাড়ী পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী আবু বক্কর সিদ্দিক ৪ হাজার ৭২১ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী মো. আনোয়ার হোসেন পেয়েছেন ৩ হাজার ৮৭১ ভোট।

শ্রীবরদী : শেরপুরের শ্রীবরদী পৌরসভায় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. আবু সাঈদ ৭ হাজার ৪২৫ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি মনোনীত প্রার্থী বর্তমান মেয়র আব্দুল হাকিম পেয়েছেন ৬ হাজার ৭৭৭ ভোট।

শেরপুর : বগুড়ার শেরপুর পৌরসভায় আওয়ামী লীগের প্রার্থী আব্দুস সাত্তার নৌকা প্রতীকে ৮৬১৬ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির স্বাধীন কুমার কুন্ডু ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন ৫৭৫৫ ভোট।

শিবগঞ্জ : বগড়ার শিবগঞ্জ পৌরসভায় আওয়ামী লীগের তৌহিদুর রহমান মানিক নৌকা প্রতীকে ৭৩৬৪ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির মতিয়ার রহমান মতিন ধানের শীষ প্রতীকে ৫৯৮৭ ভোট পেয়েছেন।

কাহালু : বগুড়ার কাহালু পৌরসভায় আওয়ামী লীগের হেলাল উদ্দিন কবিরাজ নৌকা প্রতীকে ৪৭৫৯ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির আব্দুল মান্নান ধানের শীষ প্রতীকে ভোট পেয়েছেন ৩৪৬৭।

গাবতলী : বগুড়ার গাবতলী পৌরসভায় বিএনপির প্রার্থী সাইফুল ইসলাম ৭১৭১ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের মোমিনুল হক শিলূ নৌকা প্রতীকে ভোট পেয়েছেন ২০৪৩ ভোট।

সান্তাহার : বগুড়ার সান্তাহার পৌরসভায় বিএনপির তোফাজ্জল হোসেন ভুট্টো ধানের শীষ প্রতীকে ৮৮৬৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী আওয়ামী লীগের রাশেদুল ইসলাম নৌকা প্রতীকে ৮১৫৮ ভোট পেয়েছেন।

নন্দীগ্রাম : বগুড়ার নন্দীগ্রাম পৌরসভায় স্বতন্ত্র প্রার্থী কামরুল হাসান সিদ্দিকী জুয়েল জগ প্রতীকে ৪৪৪৩ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির সুশান্ত কুমার শান্ত ধানের শীষ প্রতীকে ৪৩৪৬ ভোট পেয়েছেন।

ধুনট : বগুড়ার ধুনট পৌরসভায় স্বতন্ত্র প্রার্থী এজিএম বাদশা জম প্রতীকে ৪০০০ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির আলী মুদ্দিন হারুন ধানের শীষ প্রতীকে ২৪৬৪ ভোট পেয়েছেন।

সারিয়াকান্দি : বগুড়ার সারিয়াকান্দি পৌরসভায় আওয়ামী লীগের আলমগীর শাহি সুমন নৌকা প্রতীকে ৫৭৭৬ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির টিপু সুলতান ধানের শীষ প্রতীকে ২৪৪৭ভোট পেয়েছেন।