পরীক্ষা শুরুর আগে ২ ঘণ্টা ইন্টারনেটের গতি কমিয়ে দেয়ার নির্দেশ

85

চলমান এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে পরীক্ষা শুরুর দুই ঘণ্টা আগে থেকে মোট আড়াই ঘণ্টা সময় ইন্টারনেটে ধীর গতি রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সরকার। আজ রোববার বাংলাদেশ টেলিকমিউনিকেশন রেগুলেটরি কমিশন (বিটিআরসি) এ সংক্রান্ত এক আদেশ জারি করেছে।
আদেশে বলা হয়, পরীক্ষার নির্দিষ্ট দিনগুলোতে সকাল ৮টা থেকে সকাল সাড়ে ১০টা পর্যন্ত ইন্টারনেট ধীর গতিতে চলবে। পরীক্ষামূলকভাবে আজ রোববার রাত ১০টা থেকে সাড়ে ১০টা পর্যন্ত আধাঘণ্টা ইন্টারনেটের গতি কমিয়ে রাখা হবে।
ইন্টারনেট সেবাদাতা আইআইজি’কে (ইন্টারন্যাশনাল ইন্টারনেট গেটওয়ে) এই নির্দেশের কপি পাঠানো হয়েছে।
আদেশে বলা হয়, আগাসী ১২, ১৩, ১৫, ১৭, ১৯, ২০, ২২, ২৪ ফেব্রুয়ারি সকাল ৮টা থেকে সকাল সাড়ে ১০টা পর্যন্ত ইন্টারনেটের গতি কমিয়ে রাখতে হবে। এছাড়া ১৮ ফেব্রুয়ারি সকাল ৮টা থেকে সাড়ে ১০টা এবং দুপুর ১২টা থেকে আড়াইটা পর্যন্ত কম থাকবে ইন্টারনেটের গতি।
বিটিআরসির নির্দেশনা অনুযায়ী, আজ সকালেও শুধু মোবাইল ইন্টারনেটের গতি কমিয়ে দেয়া হয়েছিলো। সকাল ৯টা থেকে ১০টা পর্যন্ত মোবাইল ব্যবহারকারীদের ইন্টারনেটের গতি কমে আসে।
ইন্টারনেট গেটওয়ে ফাইবার এটোম এর প্রধান কর্মকর্তা সুমন আহমেদ সাবির যমুনা টেলিভিশনকে জানান, সকাল সাড়ে ৯টা থেকে ১০টা পর্যন্ত ইন্টানেটে মোবাইল অপারেটরের ট্রাফিক একেবারেই কমে গিয়েছিল। ১০টার পর আবার স্বাভাবিক হয়।
চলমান এসএসসি পরীক্ষার প্রশ্নফাঁস কোনোভাবেই ঠেকাতে পারছে না কর্তৃপক্ষ। প্রায় প্রতিটি পরীক্ষার পরপরই দেখা গেছে সকালে বা আগের রাতে ফাঁস হওয়া প্রশ্নের সাথে পরীক্ষার হলের প্রশ্ন হুবহু মিলে গেছে। এই অপকর্ম ঠেকাতে তাই এবার ইন্টারনেটের গতি কমানোর নির্দেশ দিলো সরকার।