মোবাইল নিয়ে টয়লেটে আধঘণ্টা বসে থাকায় খুলে পড়ল এই ব্যক্তির পায়ুদ্বার

108

টয়লেটে দীর্ঘক্ষণ মোবাইল হাতে বসে থাকেন? তাহলে সাবধান! কারণ টয়লেটে দীর্ঘক্ষণ মোবাইল নিয়ে বসে থাকায় এই ব্যক্তির সঙ্গে যা হল, জানলে শিউরে উঠবেন।
মোবাইল ফোনে গেম খেলতে খেলতে ঘড়ির কাঁটার দিকে নজরই দেননি এই চিনা ভদ্রলোক। আচমকাই টের পান পায়ু থেকে নিম্নাঙ্গেরই খানিকটা অংশ বেরিয়ে পড়ে ঝুলছে। প্রচন্ড ভয় পেয়ে সঙ্গে সঙ্গে হাসপাতালে ছুটে যান ওই ব্যক্তি। সেখানে গিয়ে চিকিৎসকদের মুখে যা শুনলেন, তাতে আক্রান্তর মূর্ছা যাওয়ার জোগাড়। দীর্ঘক্ষণ টয়লেট সিটে বসে থাকায় তাঁর পায়ুদ্বারটিই আংশিকভাবে খুলে ঝুলে পড়েছে। এই জাতীয় ঘটনাকে বিরল বলে আখ্যা দিচ্ছেন চিকিৎসকরা। ঘটনাটি ঘটেছে কুয়ালালামপুরে।
চিকিৎসকরা জানাচ্ছেন, যে সময় ওই ব্যক্তি ঝংশ্যান হাসপাতালে ছুটে এসেছিলেন, সে সময় তাঁর চোখেমুখে প্রচন্ড যন্ত্রণা ফুটে উঠেছিল। সোজা হয়ে হাঁটতেও পারছিলেন না, কোনওমতে বন্ধুরা তাঁকে কোলে চাপিয়ে নিয়ে আসে। সঙ্গে সঙ্গে এমারজেন্সি ওয়ার্ডে নিয়ে যাওয়া হয় তাঁকে। আর তারপরই চিকিৎসকদের চক্ষু চড়কগাছ। তাঁরা জানিয়েছেন, ওই ব্যক্তির মলত্যাগ করার অভ্যাস ঠিকমতো ছিল না। ফলে বৃহদন্ত্রের নিচের দিকের অংশটি ভারী হয়ে ছিল। ঘটনার দিন টয়লেটে বসে প্রায় আধঘণ্টা বসে থাকায় তাঁর মলদ্বারের উপর অত্যাধিক চাপ পড়ে। আর তার ফলেই ঘটে দুর্ঘটনা। পায়ুদ্বারের বাইরে ঝুলে পড়ে শরীরের নিম্নাঙ্গ।

হাসপাতাল সূত্রে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ওই ব্যক্তির তলপেটের সিটি স্ক্যান করা হয়েছে। তাঁকে সতর্ক করা হয়েছে, এভাবে টয়লেটে দীর্ঘক্ষণ বসে থাকায় ফের এরকম ঘটনা ঘটলে অতিরিক্ত রক্তক্ষরণে তাঁর মৃত্যুও হতে পারে। চিকিৎসকরা বলছেন, আধুনিক টয়লেটে মোবাইল হাতে বসে থাকার অভ্যাস অনেকেরই রয়েছে। দীর্ঘক্ষণ সিটে বসে থাকায় তলপেটে বাড়তি চাপ পড়ে। যদিও এরকম ঘটনা ১০ লক্ষ মানুষের মধ্যে মাত্র দুজনের ক্ষেত্রে ঘটে। কিন্তু সাধু সাবধান! কে বলতে পারে, হয়তো ওই দুজনের মধ্যে আপনিও থাকতে পারেন। তাই এবার থেকে মোবাইল নিয়ে টয়লেটে যাওয়ার আগে সাবধান!
-চাঞ্চল্যকর এই খবরটি জানিয়েছে দ্য স্ট্রেট টাইমস।