লন্ডন বাংলাদেশ হাইকমিশনে আওয়ামী লীগের বিক্ষোভ

83

বাংলাদেশ হাইকমিশন যুক্তরাজ্যে বিএনপি জামাতের সন্ত্রাস ও নাশকতার প্রতিবাদে বিক্ষোভ সমাবেশ করেছে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ। বৃহস্পতিবার, ৮ ফেব্রুয়ারি দুপুরে বাংলাদেশ হাইকমিশনের সামনে অনুষ্ঠিত বিক্ষাভ সমাবেশে সর্বস্তরের প্রবাসী বাঙালিরা অংশ নেন। যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগ সভাপতি সুলতান মাহমুদ শরীফ ও সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ সাজিদুর রহমান ফারুকের নেতৃত্বে বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তারা বলেন, এমন জঘন্য কাজ শুধু বিএনপি জামাতকেই মানায়।একটি দেশের হাইকমিশন বিদেশে রাস্ট্রের প্রতিনিধিত্ব করে। বাংলাদেশ হাইকমিশন যুক্তরাজ্য বাংলাদেশের সম্পদ, বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠান, ১৮ কোটি মানুষের প্রতিষ্ঠান। হাইকমিশনে জোর করে ঢুকে হামলা ও ভাংচুর করে বিএনপি জামাত প্রমাণ করেছে তারা সন্ত্রাসের রাজনীতি করে, তারা বাংলাদেশের উন্নয়ন অগ্রগতি চায়না।

তারা বলেন, ৭৫ সালের ১৫ই আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পেছনে যারা ছিলো, ৩রা নভেম্বর জেলহত্যার পেছনে যারা ছিলো, ২১শে আগস্ট গ্রেনেড হামলার সাথে যারা জড়িত ছিলো তাদের প্রেতাত্মা ও খালেদা তারেক এবং তাদের দোসর জামাত বিএনপি বাংলাদেশ হাইকমিশনে হামলা করে বিশ্ববাসীর সামনে তাদের আসল পরিচয় প্রকাশ করেছে। তাদের কাজই হলো জ্বালাও পোড়াও আর সন্ত্রাসী কর্মকান্ড। বক্তারা বলেন, এমন নিন্দনীয় ঘটনা সভ্য সমাজে, সভ্য দেশে মানায় না। হাইকমিশনে হামলা, রাষ্ট্রীয় সম্পত্তি যারা নষ্ট করেছে তারা দেশের দুশমন। বিক্ষোভ সমাবেশে খালেদা তারেককে এতিমের টাকা আত্মসাতকারী ও দুর্নীতির হোতা উল্লখ করে তাদের ছবিতে জুতা নিক্ষেপ ও ছবি পোড়ানো হয়।

সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি জালাল উদ্দিন, শামসুদ্দিন মাস্টার, মোজাম্মেল আলী, যুগ্ম সম্পাদক নঈমুদ্দিন রিয়াজ, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আহাদ চৌধুরী, শিল্প ও বানিজ্য সম্পাদক আসম মিসবাহ, জনসংযোগ সম্পাদক রবিন পাল, মহিলা সম্পাদিকা মেহের নিগার চৌধুরী সহ অনেকে। বিক্ষোভ সমাবেশে যুক্তরাজ্য আওয়ামী লীগের অংগ সংগঠন যুবলীগ, সেচ্ছাসেবকলীগ, শ্রমিকলীগ, কৃষকলীগ, ছাত্রলীগ, তাঁতীলীগ অংশগ্রহণ করেন।