নড়াইলে ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল উপলক্ষে সাংবাদিক ওরিয়েন্টেশন

94

নড়াইল কণ্ঠ : আগামি ২৩ ডিসেম্বর নড়াইল জেলায় ৯৪ হাজার ৩০জন শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এর মধ্যে ৬ -১১ মাস বয়সী শিশু ১০ হাজার ৭৮০জন শিশুকে নীল রঙের ভিটামিন “এ” প্লাস ক্যাপসুল এবং ১২-৫৯ মাস বয়সী ৮৩ হাজর ২৫০ জন শিশুকে লাল রঙের ভিটামিন “এ” প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। বুধবার (২ আগষ্ট) বিকাল ৩টায় সিভিল সার্জনের সভাকক্ষে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাপসুল ক্যাম্পেইন (২য় রাউন্ড) সফল করতে সাংবাদিকদের এক ওরিয়েন্টেশন কর্মশালায় সিভিল সার্জন ডাঃ আসাদ-উজ-জামান মুন্সী এসব তথ্য জানান।
কর্মশালায় সিভিল সার্জন আরো জানান, আগামি ২৩ ডিসেম্বর জাতীয় ভিটামিন “এ” প্লাস ক্যাপসুল ক্যাম্পেইনের আওতায় (২য় রাউন্ডে) নড়াইল জেলায় মোট ১ হাজার ৩৮টি কেন্দ্রের মাধ্যেমে স্বাস্থ্য বিভাগের ১৭৯ জন সুপারভাইজারের সরাসরি তত্বাবধায়নে ৪৩০ জন কর্মী এবং ২হাজার ৭৬জন স্বেচ্ছাসেবকদের মাধ্যমে ভিটামিন “এ” প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ান হবে।
প্রায় আট লক্ষাধিক জনসংখ্যা অধ্যুষিত নড়াইল জেলায় অপুষ্টিজণিত অন্ধত্ব নির্মূল এবং অপুষ্টি জণিত শিশু মৃত্যু প্রতিরোধে সারাদেশের ন্যায় এ জেলাতেও এ ক্যাম্পেইন চলবে। ক্যাম্পেইন সফল করতে ও ব্যাপকভাবে প্রচার-প্রচারণা চালাতে জনপ্রতিনিধি, সাংবাদিক, ঈমাম, শিক্ষকসহ সর্বস্তরের মানুষের আন্তরিক সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।
জেলা স্বাস্থ্য বিভাগের আয়োজনে সিভিল সার্জন ডাঃ আসাদ-উজ-জামান মুন্সী’র সভাপতিত্বে কর্মশালায় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন সম্পর্কে বিভিন্ন তথ্য উপাত্ত তুলে ধরে বক্তব্য দেন, জেলা পরিবার পরিকল্পনা বিভাগের উপ-পরিচালক মোঃ শামসুল আলম, সিভিল সার্জন অফিসের মেডিকেল অফিসার ডা. অলোক কুমার, সিনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা কর্মকর্তা মোল্যা ফোরকান আলী প্রমুখ।
কর্মশালায় জেলায় কমরত বিভিন্ন ইলেকট্রনিক, প্রিন্ট ও অনলাইনের ৩০জন গণমাধ্যম কর্মীী অংশগ্রহণ করেন। এ সময় স্বাস্থ্য সংশ্লিষ্ট বিভাগের কর্মকর্তাগণ উপস্থিত ছিলেন।