শিক্ষকদের বেতন বৈষম্য নিরসনের দাবিতে নড়াইলে সংবাদ সম্মেলন

110

নড়াইল কণ্ঠ : ‘প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের নিচের ধাপে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সহকারি শিক্ষকদের বেতন স্কেল নির্ধারণ’ করতে হবে। অর্থাৎ জাতীয় বেতন স্কেল ২০১৫ অনুযায়ি প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক ১১তম গ্রেড হলে আমাদের ১২তম গ্রেড করতে হবে। আমাদের এই এক দফা এক দাবি। দ্রুত এই বেতন বৈষম্য নিরসন করতে হবে। আমাদের এই যৌক্তিক দাবি আগামি ২২ ডিসেম্বর’১৭ তারিখের মধ্যে এ দাবি মেনে না নিলে কেন্দ্রীয় জোটের ঘোষনা অনুযায়ি সারাদেশের সহকারি শিক্ষকরা ২৩ ডিসেম্বর’১৭ ঢাকা কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে আমরণ অনশন কর্মসূচিতে অংশগ্রহণ করবে’।
শুক্রবার (১৫ ডিসেম্বর) সকাল ১১টায় নড়াইল প্রেসক্লাব সভাকক্ষে প্রাথমিক সহকারি শিক্ষক সংগঠন সমূহের সমন্বয় গঠিত বাংলাদেশ প্রাথমিক সহকারি শিক্ষক মহাজোটের আয়োজনে শিক্ষক নেতা অমিতোষ কান্তি বিশ্বাসের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে শিক্ষকরা এ সব কথা বলেছেন।
প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষকের নিচের ধাপে প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত সহকারি শিক্ষকদের বেতন স্কেল নির্ধারণের এক দফা এক দাবি বাস্তবায়ন করতে নড়াইলে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করে শোনান সহকারি শিক্ষক নেত্রী রুমানা ইয়াসমিন কেয়া। লিখিত বক্তব্যে আরো বলা হয়, শ্রেণিগত মর্যাদা বৈষম্য অর্থাৎ প্রধান শিক্ষক ২য় শ্রেণি আর সহকারি শিক্ষকরা ৩য় শ্রেণি। যা কর্মস্থলে কর্মকর্তা আর কর্মচারি মনোভাব সৃষ্টি করেছে এবং বেতন বৈষম্য ৩ ধাপ নিচে অর্থাৎ প্রধান শিক্ষক ১১তম গ্রেড এবং সহকারি শিক্ষক ১৪তম গ্রেড। এই নিয়মে চলতে থাকলে আর্থিক বৈষম্য প্রধান ও সহকারিদের চরম অসংগতি পর্যায় চলে যাবে। এ বিষয়টি গুরুত্বের সাথে প্রধানমন্ত্রী আশু হস্তক্ষেপ কামনা করেন।
এ সময় সভাপতি সাংবাদিকদের জানান, সহকারি শিক্ষকদের এক দফা এক দাবি বাস্তবায়নের জন্য ইতিমধ্যে কেন্দ্রীয় পর্যায় শিক্ষকদের ৪টি সংগঠনকে একত্রিত করে ৯ সদস্য বিশিষ্ট বাংলাদেশ প্রাথমিক সহকারি শিক্ষক মহাজোট করা হয়। জাতীয় এ মহাজোটের আহবায়ক হিসেবে রয়েছেন আমাদের নড়াইলের সন্তান উজ্জ্বল রায়। মহাজোটের অন্যান্য সদস্যরা হলেন বাংলাদেশ প্রাথমিক সহকারি শিক্ষক সমিতি (রেজি: ১২০৬৮/১৫) এর সভাপতি মো: শামসউদ্দিন মাসুদ, সাধারণ সম্পাদক সাবেরা খানম, বাংলাদেশ প্রাথমিক সহকারি শিক্ষক সমাজ (রেজি: ১২১৯৮/১৫) এর সভাপতি তপন মন্ডল, সাধারণ সম্পাদক আসাদুজ্জামান, বাংলাদেশ প্রাথমিক সহকারি শিক্ষক ফাউন্ডেশন (রেজি: ১২১৯৯/১৫) এর সভাপতি শাহিনূর আক্তার, সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম এবং বাংলাদেশ প্রাথমিক সহকারি শিক্ষক সমাজ (রেজি: ১২০৪৮/১৫) এর সভাপতি শাহিনূর আল আমীন, সাধারণ সম্পাদক খসরুজ্জামান।
২০১৪ সাল হতে শ্রেণিগত মর্যাদা বৈষম্য নিরসনের দাবি বাস্তবায়নের উজ্জ্বল রায় কাজ করে যাচ্ছেন।
সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদে বিভিন্ন প্রশ্নের জবাব দেন সহকারি শিক্ষক সংগঠন সমূহের সমন্বয় গঠিত বাংলাদেশ প্রাথমিক সহকারি শিক্ষক মহাজোট এর আহবায়ক উজ্জ্বল রায় ও কাজী কামরুল হুদা।