চারণ কবি বিজয় স্মরণ মেলা উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলন

100

নড়াইল কণ্ঠ : চারণকবি বিজয় স্মরণ মেলা উপলক্ষে সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে। অসাম্প্রদায়িক চেতনার সুরশ্রষ্ঠা চারণ কবি বিজয় সরকারের ৩২তম প্রয়াণ দিবস ৪ ডিসেম্বর সোমবার। এ উপলক্ষে রবিবার (৩ ডিসেম্বর) বিকাল ৪টায় বিজয় ফাউন্ডেশন গণসংযোগ কার্যালয়ে চারণ কবি বিজয় মেলা ২০১৭ উদযাপন পর্ষদের আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা সাইফুর রহমান হিলুর সভাপতিত্বে সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন চারণ কবি বিজয় সরকার ফাউন্ডেশনের যুগ্ম আহবায়ক এস, এম আকরাম শাহীদ চুন্নু। এ সময় উপস্থিত ছিলেন প্রফেসর মো: রবিউল ইসলাম, চারণ কবি বিজয় সরকার ফাউন্ডেশনের সদস্য সচিব নেজারত ডেপুটি কালেক্টর মো: সওরয়ার উদ্দিন, ফাউন্ডেশনের সদস্য মৃতুঞ্জয়, যাযাবর মনির, সাথী তালুকদার প্রমুখ। এ সময় বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিনিধি উপস্থিত ছিলেন।
লিখিত বক্তব্যে এস, এম আকরাম শাহীদ চুন্নু জানান, দু’দিনব্যাপি চারণ কবি বিজয় স্মরণ মেলায় প্রথম দিন (৪ ডিসেম্বর) সোমবার সকাল ১০টায় শিল্পকলায় চিত্র প্রদর্শনী’র মধ্যদিয়ে মেলার উদ্বোধন করবেন নড়াইলের জেলা প্রশাসক ও চারণ কবি বিজয় সরকার ফাউন্ডেশনের সভাপতি মো: এমদাদুল হক চৌধুরী। এ ছাড়া বিজয় গীতি প্রতিযোগিতা, স্ব রচিত কবিতা পাঠের আসর, সন্ধ্যায় এপার বাংলা অপার বাংলার শিল্পীদের পরিবেশনায় বিজয় গীতির আসর, রাতে ধুয়া গানের আসর এবং খুলনার রূপান্তর এর পরিবেশনায় বিজয়ের উপর নির্মতি পাট গান।
২য়দিনে রয়েছে সকাল ১০টায় জেলা শিল্পকলায় কব বিজয় সরকারের উপর আন্তর্জাতিক সেমিনার। সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে থাকবেন রবন্দ্র ভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক উপাচার্য ড. পবিত্র সরকার। সন্ধ্যায় স্বর্ণ পদক প্রদান ও বিজয় গীতির আসর।
এবার যারা স্বর্ণ পদক পাচ্ছেন যারা তারা হলেন কবিয়াল কৃঞ্চ কান্ত সরকার, সঞ্জয় মল্লিক, স্বপন সরকার ও কবিয়াল মো: আবু ইউসুফ।
উল্লেখ্য, বার্ধ্যকজনিত কারণে ১৯৮৫ সালের ৪ ডিসেম্বর ভারতে পরলোকগমন করেন কবিয়াল বিজয় সরকার। পশ্চিমবঙ্গের কেউটিয়ায় তাঁকে সমাহিত করা হয়। এই গুণি শিল্পী ২০১৩ সালে মরণোত্তর একুশে পদকে ভূষিত হন। ১৩০৯ বঙ্গাব্দের ৭ ফাল্গুন নড়াইল সদরের ডুমদি গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন।
প্রকৃত নাম বিজয় অধিকারী হলেও সুর, সঙ্গীত জন্য ‘সরকার’ উপাধি লাভ করেন। বিজয় সরকারের বাবার নাম নবকৃষ্ণ অধিকারী ও মা হিমালয়া দেবী। বিজয় সরকার নবমশ্রেণি পর্যন্ত লেখাপড়া করেন। মতান্তরে মেট্রিক (এসএসসি) পর্যন্ত। বিজয় সরকারের দুই স্ত্রী-বীণাপানি ও প্রমোদা অধিকারীর কেউই বেঁচে নেই। সন্তানদের মধ্যে কাজল অধিকারী ও বাদল অধিকারী এবং মেয়ে বুলবুলি অধিকারী ভারতের পশ্চিমবঙ্গে বসবাস করছেন। বিজয় সরকার তাঁর জীবনদ্দশায় প্রায় ১৮০০ গান লিখেছেন এবং সুর করেছেন। বিজয় সরকার নবমশ্রেণি পর্যন্ত লেখাপড়া করেছেন, মতান্তরে মেট্রিক পর্যন্ত।
বিজয় সরকার গেয়েছেন-যেমন আছে এই পৃথিবী / তেমনিই ঠিক রবে/ সুন্দর পৃথিবী ছেড়ে একদিন চলে যেতে হবে…। নবী নামের নৌকা গড়/ আল্ল¬াহ নামের পাল খাটাও/ বিসমিল্ল¬াহ বলিয়া মোমিন/ কূলের তরী খুলে দাও…। কিংবা আল্ল¬াহ রসূল বল মোমিন/ আল্লাহ রসূল বল/ এবার দূরে ফেলে মায়ার বোঝা/ সোজা পথে চল…। গেয়েছেন-পোষা পাখি উড়ে যাবে সজনী/ ওরে একদিন ভাবি নাই মনে/ সে আমারে ভুলবে কেমনে…। বিজয় সরকারের ৩২তম মৃত্যুবাার্ষিকী উপলক্ষে জেলা শিল্পকলা একাডেমি চত্বরে ৪ ও ৫ ডিসেম্বর বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।