বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করা হবে ২০১৮ সালের মার্চে

155

নড়াইল কণ্ঠ : বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ জানিয়েছেন, ২০১৮ সালের মার্চে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করা হতে পারে।
২৯ নভেম্বর বুধবার বিটিআরসি কার্যালয়ে টিআরএনবি’র নবগঠিত কমিটির সঙ্গে মতবিনিময়কালে শাহজাহান মাহমুদ বলেন, আমরা এখন বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণের অপেক্ষায় রয়েছি। আশা করা যাচ্ছে আগামী বছরের মার্চের কোনো এক সময় যুক্তরাষ্ট্র থেকে স্যাটেলাইটটি উৎক্ষেপণ করা হবে।
এর আগে সংশ্লিষ্ট সূত্র জানিয়েছিল, ফ্রান্সের থ্যালাস এলিনিয়া স্পেসের ফ্যাক্টরিতে ‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট’-এর নির্মাণ কাজ শেষ। এখন পরীক্ষা-নিরীক্ষা চলছে। পরীক্ষা-নিরীক্ষা শেষে জানুয়ারিতে রাশিয়ার তৈরি কার্গো বিমানে স্যাটেলাইটটি যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডা অঙ্গরাজ্যের কেপ কার্নিভালে নেয়া হবে। সেখান থেকে উৎক্ষেপণ করা হবে স্যাটেলাইটটি।
জানা যায়, বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট মহাকাশে গেলে বিশ্বের ৫৭তম দেশ হিসেবে নিজস্ব স্যাটেলাইটের মালিক হবে বাংলাদেশ। মহাকাশে বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের অবস্থান হবে ১১৯ দশমিক ১ ডিগ্রি পূর্ব দ্রাঘিমাংশে।

‘বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট’-এ রয়েছে ৪০টি ট্রান্সপন্ডার। যার মধ্যে ২৬টি কেইউ-ব্যান্ডের এবং ১৪টি সি-ব্যান্ডের। ওই ট্রান্সপন্ডারগুলোর মধ্যে প্রাথমিকভাবে ২০টি ব্যবহার করবে বাংলাদেশ। এই কক্ষপথ থেকে বাংলাদেশ ছাড়াও সার্কভুক্ত সব দেশ, ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপাইন, মিয়ানমার, তাজিকিস্তান, কিরগিজস্তান, উজবেকিস্তান, তুর্কমিনিস্তান ও কাজাখস্তানের কিছু অংশ বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের আওতায় আসবে। তবে মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে এই স্যাটেলাইট দিয়ে সেবা দেওয়া সম্ভব হবে না বলে জানা গেছে।
প্রসঙ্গত, ২০১৫ সালের ১২ নভেম্বর বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ নির্মাণের লক্ষ্যে ফ্রান্সের কোম্পানি থ্যালেস এলেনিয়া স্পেসের সঙ্গে চুক্তি করে বিটিআরসি। চুক্তি অনুযায়ী বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইটের কাঠামো, উৎক্ষেপণ, ভূমি ও মহাকাশের নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা, ভূস্তরে দুটি স্টেশন পরিচালনা ও নির্মাণে ঋণের ব্যবস্থা করার দায়িত্ব পালন করছে ফরাসি প্রতিষ্ঠানটি। নির্মাণ শেষে এই স্যাটেলাইট উৎক্ষেপণ করবে যুক্তরাষ্ট্রের কোম্পানি স্পেস এক্স।