৭মার্চের ভাষণ বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্যের স্বীকৃতিতে গোপালগঞ্জে আনন্দ শোভাযাত্রা

90

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৭ মার্চের ভাষণ ইউনেস্কোর “মেমোরি অব দ্য’ ওয়ার্ল্ড ইন্টারন্যাশনাল রেজিস্টার” এ অন্তর্ভুক্তির মাধ্যমে “বিশ্বপ্রামাণ্য ঐতিহ্যের” স্বীকৃতি লাভের অসামান্য অর্জন উপলক্ষে গোপালগঞ্জে আনন্দ শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত হয়েছে।
শনিবার ( ২৫ নভেম্বর) বেলা ১১টায় জেলা শিল্পকলা একাডেমি চত্বর থেকে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ মোখলেসুর রহমান সরকারের নেতৃত্বে এ আনন্দ শোভা যাত্রা বের করা হয়। শোভাযাত্রাটি শহরের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিণ করে স্থানীয় পৌর পার্কে এসে শেষ হয়। সেখানে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
আলোচনা সভায় জেলা প্রশাসক সরকার মোখলেসুর রহমান বলেন, ৭ই মার্চের ভাষন বাঙালী জাতির জন্য একটি গর্বিত ভাষন এই ভাষনটি ইউনেস্কো কর্তৃক বিশ্ব প্রামাণ্য ঐতিহ্যের স্বীকৃতি দেওয়ায় গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক হিসাবে গর্বীত। তিনি আরো বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু এই জেলাতে জন্ম গ্রহণ করেন এবং এখানেই তিনি ঘুমিয়ে আছেন। সেই জেলার জেলা প্রশাসক হিসাবে দায়িত্ব নিয়ে কাজ কারায় তিনি গর্বীত।
শোভা যাত্রায় জেলার বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারী, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষক-শিক্ষার্থী, মুক্তিযোদ্ধা, জেলা আওয়ামীলীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতারা ও বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের নেতারা অংশ গ্রহণ করেন। এর আগে জেলা শিল্পকলা একাডেমী চত্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে পুষ্পমাল্য অর্পন করে শ্রদ্ধা জানানো হয়।
এদিকে, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভাইস চ্যান্সেলর প্রফেসর ড. খোন্দকার নাসিরউদ্দিন’র নেতৃত্বে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে আনন্দ শোভাযাত্রা বের করা হয়। শোভা যাত্রাটি প্রশাসনিক ভবনের সামনে থেকে শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ করে। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে ইঞ্জিনিয়ারিং অনুষদের ডীন প্রফেসর ড. মো. শাহজাহান, আইন অনুষদের ডীন আব্দুল কুদ্দুস মিয়া, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক এস এম গোলাম হায়দারসহ বিভিন্ন বিভাগের সভাপতি, শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন। এছাড়া জেলার বিভিন্ন উপজেলায়ও অনুরুপ কর্মসূচি পালিত হয়েছে।