বনদস্যুদের ডেরা থেকে ১১ জেলে উদ্ধার

121

নড়াইল কণ্ঠ : সুন্দরবনের পশ্চিম বন বিভাগের সাতক্ষীরা রেঞ্জে বনদস্যু কাজল-মুন্না বাহিনীর ডেরা থেকে অপহৃত ১১ জেলেকে উদ্ধার করেছে কয়রা থানা পুলিশ।
বুধবার (২২ নভেম্বর ) বিকেলে পুলিশের দেয়া ভাষ্যমতে, সুন্দরবনে আড়পাঙ্গাশিয়া নদী সংলগ্ন ভাড়ানীর খাল হতে মুক্তিপণের দাবিতে অপহৃত জেলেদের উদ্ধার করা হয়।
অপহৃত জেলারা হলেন- শ্যামনগর উপজেলা গাবুরা ইউনিয়নের ৯ নং সোরা গ্রামে মৃত নাজের বৈদ্যের ছেলে আজিজুল ইসলাম, নুরো মালির ছেলে আকবর মালি, বাসার খার ছেলে ইমরান খা, আজিজুল ইসলাম গাজীর ছেলে আল মামুন, নাপিতখালি গ্রামে হানিফ হাওলাদারের ছেলে সাবুদ আলী, মৃত সৈয়দ হাওলাদারের ছেলে সাইফুল হাওলাদার, মৃত আ. রশিদ গাজীর ছেলে কিসমত গাজী এবং কয়রা থানার ছোট আংটিহারা গ্রামে মৃত সাবুদ আলী কবিরাজের ছেলে আসাদুল কবিরাজ, আক্তার শেখের ছেলে আলতাপ শেখ, তমির গাজীর ছেলে মান্নান গাজী ও কওছার মোড়লের ছেলে হান্নান মোড়ল।
বুধবার বিকেলে কয়রা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এনামুল হক সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, সুন্দরবনে কাজল-মুন্না বাহিনীর কাছে জিম্মিকৃত জেলেদের অবস্থান নিশ্চিত হয়ে ঘটনাস্থলে অভিযান চালিয়ে তাদের মুক্ত করা হয়। এসময়ে পুলিশের উপস্থিতি আঁচ পেয়ে বনদস্যুরা সুন্দরবনে সটকে পড়ে। পরে ঘটনাস্থল তল্লাশী করে চারটি নৌকা, দেশে তৈরি একটি পাইপগান, টুটুবোর রাইফেল একটি ও পাঁচ রাউন্ন তাজা গুলি উদ্ধার করা হয়। অপহৃত জেলেদের আইনি প্রক্রিয়ায় নিজ নিজ বাড়িতে পাঠানো হয়েছে।
অপর এক ঘটনায় বুধবার ভোর পাঁচটার দিকে বনদস্যু জোনাব বাহিনী মুক্তিপণের দাবিতে গাবুরা ইউনিয়নে ডুমুরিয়া গ্রামে আরিফ গাজীর ছেলে সাইফুল গাজীকে সুন্দরবনে ইলসে মারী এলাকা থেকে অপহরণ করে ১ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করেছে বলে জানিয়েছে সাইফুলের পরিবার।