কুড়িগ্রামে মুক্তিযোদ্ধা হত্যা মামলার শুনানি মুলতবি

95

নড়াইল কণ্ঠ : কুড়িগ্রামে ধর্মান্তরিত খ্রিস্টান মুক্তিযোদ্ধা হোসেন আলী হত্যাকাণ্ডে বিস্ফোরক দ্রব্য মামলায় দুই জেএমবি সদস্যের পক্ষে আইনজীবী না থাকায় অভিযোগ গঠনের জন্য শুনানি এক দিনের জন্য মুলতবি করা হয়েছে।
আটক জেএমবি সদস্যরা হলেন- গাইবান্ধা জেলার সাঘাটার ভুতমারা বোনারপাড়া গ্রামের ওসমান মোল্ল্যার ছেলে রাজীব গান্ধী ও কুড়িগ্রামের রাজারহাট উপজেলার তালুক নাককাটির একতীরের আড়া গ্রামের নুর হোসেন ব্যাপারীর ছেলে গোলাম রব্বানী। জেএমবি সদস্য রাজীব গান্ধী হলিআর্টিজান ও শোলাকিয়া হত্যা মামলারও আসামি।
বুধবার দুপুরে কড়া পুলিশি নিরাপত্তায় মামলার প্রধান আসামি জেএমবির অন্যতম সদস্য রাজীব গান্ধী ও গোলাম রব্বানীকে আদালতে হাজির করা হয়।
কুড়িগ্রাম জেলা ও দায়রা জজ ওএইচএম ইলিয়াস হোসাইনের আদালতে অভিযোগ শুনানির জন্য তাদের হাজির করা হলে আসামিরা তাদের পক্ষে আইনজীবী নিয়োগের আবেদন জানান। পরে আদালত এক দিনের মুলতবি করে বৃহস্পতিবার শুনানির দিন ধার্য করেন।
কুড়িগ্রামের পাবলিক প্রসিকিউটর অ্যাডভোকেট আব্রাহাম সাংবাদিকদের জানান, বিস্ফোরক দ্রব্যের মামলায় জেএমবি সদস্য রাজীব গান্ধী ও গোলাম রব্বানীসহ বাকি দুই আসামির অভিযোগ গঠনের দিন ধার্য ছিল।
কিন্তু সংশ্লিষ্ট আসামিদের পক্ষে নিযুক্ত আইনজীবী না থাকায় তাদের জিজ্ঞাসাবাদে তারা আইনজীবী নিয়োগ করবে মর্মে আদালত মুলতবি করেছেন। তাদের আইনজীবী নিয়োগের সুযোগ দিয়ে বৃহস্পতিবার মামলাটির পুনরায় শুনানি হবে।
উল্লেখ্য, ২০১৬ সালের ২২ মার্চ কুড়িগ্রাম সদরের গাড়িয়াল পাড়া এলাকায় সকালে নিজ বাড়ির সামনে কুপিয়ে হত্যা করা হয় ধর্মান্তরিত খ্রিস্টান মুক্তিযোদ্ধা হোসেন আলীকে। এ সময় হত্যাকারীরা বোমার বিস্ফোরণ ঘটিয়ে মোটরসাইকেলযোগে পালিয়ে যায়।
এ ঘটনায় হত্যা ও বিস্ফোরক আইনে পৃথক দুটি মামলা হয়। মামলায় ৭ আসামির মধ্যে চার আসামি ইতিপূর্বে হলি আর্টিজান, শোলাকিয়া, নান্দাইল ও রাজশাহীতে পুলিশের সাথে বন্দুকযুদ্ধে নিহত হয়। বাকি এক আসামি এখনো পলাতক রয়েছে।