নড়াইলের এসপি রকিবুল ইসলাম এডিশনাল ডিআইজি হওয়ায় অভিনন্দন

890

নড়াইল কণ্ঠ : নড়াইলের সুযোগ্য পুলিশ সুপার সরদার রকিবুল ইসলাম অতিরিক্ত উপ-মহাপরিদর্শক (এডিশনাল ডিআইজি) হিসেবে পদোন্নতি পেয়েছেন। বুধবার পুলিশ-১ অধিশাখার উপ-সচিব মো. ইলিয়াস হোসেন সাক্ষরিত এক আদেশে এই নির্দেশনা কার্যকর করা হয়।
তাঁর এই পদোন্নতি হওয়ায় নড়াইলের জেলা প্রশাসক মো: এমদাদুল হক চৌধুরী, সাবেক জেলা মু্ক্তিযোদ্ধা সংসদের ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা অ্যাডভোকেট এস এ মতিন, জেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি, জেলা কমিউনিটি পুলিশিং ও নড়াইল কণ্ঠ এর সম্পাদক কাজী হাফিজুর রহমান, আব্দুল হাই সিটি কলেজের অধ্যক্ষ ও জেলা দুর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি মো: মনিরুজ্জামান মল্লিক, নড়াইলে প্রেসক্লাবের সভাপতি অ্যাডভোকেট আলমগীর সিদ্দিকী, সাধারণ সম্পাদক মীর্জা নজরুল ইসলাম, বাংলাদেশ রেড ক্রিসেন্ট সোসাইটি নড়াইল ইউনিটের সাধারণ সম্পাদক কাজী ইসমাইল হোসেন লিটন, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্যবদ্ধ পরিষদ নড়াইল জেলার সভাপতি সহকারী অধ্যাপক মলয় কান্তি নন্দী,নড়াইল জেলা বাস-মিনিবাস মালীক সমিতির পক্ষে সাধারন সম্পাদক কাজী জহিরুল হক, জেলা পুজা উদযাপন কমিটির সভাপতি অশোক কুন্ডুসহ বিভিন্ন সরকারি, বেসরকারি, সামাজিক, রাজনৈতিক, সাংস্কৃতিক পর্যায়ের ব্যক্তিবর্গ ফুলেল শুভেচ্ছা দিয়ে অভিনন্দন জানিয়েছেন। সকলে তাঁর শুভ কামনা ও দীর্ঘায়ূ কামনা করেছেন।
এদিকে তাঁর পদোন্নতি হওয়ায় নড়াইলের সচেতন মানুষ যেমন আনন্দিত হয়েছেন, ঠিক তেমনিভাবে তারা হতাশ হয়েও পড়েছেন। কারন এই সরদার রকিবুল ইসলাম-এসপি যেভাবে মাদক ও ইভটিজিং মুক্ত করতে নড়াইলে তৎপরতা চালাচ্ছিলেন তা বন্ধ না হয়ে যায়। মানুষের দূর্ভোগ যেন বেড়ে না যায় এমনটি মত প্রকাশ করেছেন নড়াইলের সচেতন মহল।
উল্লেখ্য, ইতোমধ্যে প্রায় ৬টি বছর নড়াইলে এএসপি (সার্কেল) এবং দুই টার্ম এসপি হিসেবে সরদার রকিবুল ইসলাম কর্মজীবন কাটিয়েছেন। প্রাই এই ৬ বছরে তিনি নড়াইলে ন্যায়-নিষ্ঠা, সুনাম এবং আত্মতৃপ্তির সাথে অনেক গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন। নড়াইলের সর্বস্তরের মানুষের কাছে তিনি ভালবাসা পেয়েছেন।
জাতিসংঘ শান্তিরক্ষা মিশনে ‘সুদানে’ উচ্চপরিসরে কাজে বাংলাদেশের প্রতিনিধিত্ব করেছেন। তিনি নড়াইলে বাংলাদেশের মধ্যে প্রথম মহিলা কমিউনিটি পুলিশিং ফোরাম গংঠন করেছেন। তিনি এ জেলায় মাদক, জঙ্গি ও ইভটিজিং মুক্ত করতে অনন্য অসাধারণ ভূমিকা রেখেছেন। তিনি নড়াইল কমিউনিটি ট্রাফিকং চালু করার উদ্যোগ করেছেন। এদিকে সচেতন মহলের বিশেষ দাবি করেছেন এসব উদ্যোগ যেন সরদার রকিবুল ইসলাম চলে যাওয়ার পরপর যেন বন্ধ না হয়ে যায়, এটা যেন অব্যাহত থাকে সেদিকটা যেন পরবর্তীতে যিনি নড়াইলের পুলিশ সুপার হয়ে আসবেন তিনি যিনি খেয়াল রাখেন।