অক্টোবর বিপ্লবের শতবর্ষ পূর্তিতে সাতক্ষিরায় সমাবেশে-কমরেড মেনন

184

নড়াইল কণ্ঠ : অক্টোবর বিপ্লবের শতবর্ষ পূর্তিতে সাতক্ষিরায় সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়েছে। শনিবার (৪ নভেম্বর) বিকালে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি সাতক্ষীরা জেলা শাখার উদ্যোগে জেলা শিল্পকলা একাডেমি হল রুমে পক্ষ এ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। সমাবেশে ওয়ার্কার্স পার্টি সাতক্ষীরা জেলা শাখার সভাপতি মোস্তফা লুৎফুল্লাহ এমপি’র সভাপতিত্বে প্রধান বক্তা ছিলেন বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি, বেসামরিক বিমান চলাচল ও পর্যটন মন্ত্রী কমরেড রাশেদ খান মেনন এমপি। অন্যান্যের বক্তব্য রাখেন ওয়ার্কার্স পার্টির পলিটব্যুরোর সদস্য কমরেড প্রফেসর ড.সুশান্ত দাস, কমরেড নূর আহমেদ বকুল, কেন্দ্রীয় সদস্য কমরেড দীপংকর সাহা দিপু প্রমূখ।
সমাবেশে বক্তরা বলেন, আজ থেকে শত বছর আগে সংগঠিত ১৯১৭ সালের সোভিয়েত সমাজতান্ত্রিক বিপ্লব মানুষের মুক্তি সংগ্রামের ইতিহাসে যুগান্তকারী এক মাইলফলক। দুনিয়া কাঁপানো এই বিপ্লবে কমরেড লেনিনের নির্দেশনায়, বলশেভিক পার্টি ও শ্রমিক শ্রেণির নেতৃত্বে শোষিত জনগণ রাশিয়ার ক্ষমতা দখল করে; উৎখাত করে বুর্জোয়াসহ শোষক শ্রেণির ক্ষমতা, কায়েম করে শ্রমিক শ্রেণির একনায়কত্বাধীন রাষ্ট্র। এরই মধ্য দিয়ে মানুষের মুক্তির একমাত্র পথ মার্কস-এঙ্গেলস সূচিত সমাজতন্ত্র-সাম্যবাদের পথে বিপ্লবী অভিযাত্রা শুরু হয়। এই লড়াই এগিয়ে নেয়ার উদ্দেশ্যে দুনিয়াজুড়ে শ্রমিক শ্রেণি ও নিপীড়িত জনগণ বিপুল উৎসাহ উদ্দীপনায় সোভিয়েত বিপ্লবের শতবর্ষ উদযাপন করছে।
বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও জাতীয় মুক্তির দীর্ঘ সংগ্রামের মধ্যেও অক্টোবর বিপ্লবের অনুপ্রেরণা ছিল। যার কারণে ৫২ এর ভাষা আন্দোলন থেকে মুক্তিযুদ্ধ পর্যন্ত প্রতিটি সংগ্রাম ও দাবির মধ্যে সমাজতান্ত্রিক ভাবনার প্রাধান্য ছিল। এরই ধারাবাহিকতায় ১৯৭২ সালে বাংলাদেশের মহান সংবিধানের মূলনীতির অন্যতম হিসেবে সমাজতন্ত্রকে গ্রহণ করা হয়। তাই আজ বাংলাদেশের সামনে ন্যায়ভিত্তিক, সমতাভিত্তিক, অসাম্প্রদায়িক মুক্তিযুদ্ধের চেতনাসম্পন্ন সমাজ গঠন ছাড়া কোনো বিকল্প নেই। সাধারণ মেহনতি মানুষকে এই লক্ষ্যে রাজনৈতিকভাবে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। ঐক্যবদ্ধ সংগ্রামই হবে সত্যিকার জনগণতান্ত্রিক রাষ্ট্র প্রতিষ্ঠার একমাত্র পথ। আসুন, শতবর্ষ আগে অক্টোবর বিপ্লব যে প্রেরণা যুগিয়েছিল, সেটি ধারণ করে শোষণ-মুক্তির সংগ্রামের ধারা গড়ে তুলি।